মানবাধিকার নিয়ে মার্কিন প্রতিবেদন মনগড়া-ভিত্তিহীন: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশ | ২২ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৩৪ | আপডেট: ২২ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৫৫

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রকাশিত প্রতিবেদনকে মনগড়া ও ভিত্তিহীন। প্রতিবেদনের ক্ষেত্রে সরকারের ভাষ্য না নেয়া কূটনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত কাজ। 

বললেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। 

রোববার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে ওই প্রতিবেদনের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সরকারের অবস্থান তুলে ধরেন তিনি।

হাসানুল হক ইনু বলেন, মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ওই প্রতিবেদন সম্পূর্ণ একতরফা, মনগড়া এবং ভিত্তিহীন। একটা দেশের রাজনৈতিক, সামাজিক ও আর্থিক বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করার ক্ষেত্রে ওই দেশের সরকারের ভাষ্য না নেয়া কূটনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত কাজ। আমরা এ প্রতিবেদন সম্পূর্ণ প্রত্যাখ্যান করছি।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় বিশেষ সেল গঠনের দাবি ঢাবি শিক্ষকদের
--------------------------------------------------------

বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় কাউকে দায়মুক্তি দেয়ার বিষয় বাংলাদেশের আইনে নেই জানিয়ে তিনি বলেন, গুম-খুনের কিছু ঘটনা ঘটেছে, যার বিচার চলছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, তারা হেফাজতের তাণ্ডবের সময় মিথ্যা প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

বিশ্বের প্রায় ২০০টি দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে স্থানীয় সময় শুক্রবার প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করেন যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন সুলিভান।

এতে বাংলাদেশে রাজনৈতিক স্বাধীনতা সীমিতকরণ, বিচারবহির্ভূত হত্যা, নির্যাতন, বেআইনি আটক এবং সরকারি নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক গুমের ঘটনা উঠে এসেছে। একই সঙ্গে বাকস্বাধীনতা, গণমাধ্যম এবং বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) কার্যক্রমসহ নাগরিক স্বাধীনতার ওপর বিধিনিষেধ আরোপের বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।

রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের বিষয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, নির্বাচনে বিজয়ী রাজনৈতিক দল চাকরি এবং সরকারি টেন্ডারের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য সুযোগ-সুবিধা পায়। বিরোধী দলের নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা দিতে সরকার আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাকে ব্যবহার করছে। বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ ও দুর্নীতি মামলা দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন : 

এসজে/জেএইচ