close
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭ | ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

শ্বশুর-শাশুড়ির সেবা করতে পুত্রবধূকে জোর করা যাবে না

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ১১ নভেম্বর ২০১৭, ১৮:৫৪ | আপডেট : ১১ নভেম্বর ২০১৭, ১৯:০৯
আরটিভি’র সরাসরি ইসলাম নিয়ে প্রশ্নোত্তরমূলক বিশেষ অনুষ্ঠান ‘শরিফ মেটাল প্রশ্ন করুন’। এ অনুষ্ঠানে কোরআন ও হাসিদের আলোকে দর্শক-শ্রোতাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেয়া হয়। এবারের পর্বে উত্তর দিয়েছেন ইসলামী চিন্তাবিদ হাফেজ মুফতি কাজী মুহাম্মদ ইব্রাহিম।

১. ঘরের ভেতরে পরিবারের সদস্যদের সামনেও কি হাত মোজা, পা মোজা বা হিজাব পরার দরকার আছে?

উত্তর: সূরা আল-নূরের ৩০ ও ৩১ নং আয়াতে আল্লাহ-তায়ালা স্পষ্টভাবে উল্লেখ করেছেন, বারোজন মানুষের সামনে নরীরা তাদের বাহ্যিক সৌন্দর্য প্রকাশ করতে পারে। তাতে কোনো সমস্যা নেই। এই বারোজন হলেন পিতা, স্বামী, পুত্র, স্বামীর আগের ঘরের পু্ত্র, ভাই, ভাতিজা, বোনোর পুত্র, অবুঝ শিশু, নপুংসক পুরুষ। মুসলিম নারীদের এদের সামনে কঠিন পর্দা করার দরকার নেই।

২. পায়ে ধরে সালাম ইসলামে জায়েজ আছে কী না? 

উত্তর: পায়ে ধরে সালাম করা ইসলামে জায়েজ নেই। দাঁড়িয়ে মাথা উঁচু করে সালাম দিতে হবে। মাথা নিচু করে সালাম দেওয়ারও সুযোগ নাই।

৩. ইসলামে শ্বশুর-শাশুড়ির সেবার বিষয়ে কি নির্দেশনা রয়েছে?

উত্তর: শ্বশুর-শাশুড়ির সেবা করা নফল ইবাদত। তবে পুত্রবধূ যদি শ্বশুর-শাশুড়িকে মন থেকে সেবা করতে না চায় তাহলে তাকে জোর করা যাবে না। হাদিসে বর্ণিত আছে যে বড়দের সম্মান করে না বা ছোটদের স্নেহ করে না সে আমার উম্মত না। শ্বশুর-শাশুড়ি অবশ্যই সেবা পাওয়ার উপযুক্ত। শ্বশুর-শাশুড়ির কাছে পুত্রবধূ মেয়ের মতো। আবার শ্বশুর-শাশুড়িকেও পুত্রবধূর সঙ্গে মেয়ের মতো ব্যবহার করতে হবে। তার সঙ্গে দাসীর মতো আচরণ করা যাবে না ।

আরকে/এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়