close
ঢাকা, রোববার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ | ০৩ পৌষ ১৪২৪

ডিএসসি পুরস্কার পেলেন শ্রীলংকান সাহিত্যিক অনুক

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ১৪:০৬ | আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ১৪:১২
বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ গত তিন দিনই মুখর ছিল দেশি-বিদেশি সাহিত্যিকদের পদচারণায়। গত ১৬ নভেম্বর শুরু হয় ‘ঢাকা লিট ফেস্ট’। এই আয়োজনের পর্দা নামলো ১৮ নভেম্বর সন্ধ্যায়।

আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মঞ্চে সকাল ১০টায় শুরু হয় সমাপনী দিনের প্রথম আয়োজন। ‘ওমেন আর্ট অ্যান্ড পলিটিক্স’ শীর্ষক আলোচনায় বি রোলেটের সঞ্চালনায় অংশ নেন এস্থার ফ্রয়েড, নন্দনা সেন, বিগো চৌল ও সাদাফ সায্‌।

ব্রিটিশ লেখক জন বার্জারকে সম্মাননা জানালেন তারই বন্ধু অস্কারজয়ী অভিনেত্রী টিলডা সুইন্টন। চলতি জানুয়ারি মাসে মৃত্যুবরণ করেন জন বার্জার।  তাকে নিয়ে নির্মিত ডকুমেন্টারি ‘দ্য সিজন্স ইন কুইন্সি; ফোর পোর্ট্রেইটস অব জন বার্জার’ দেখানো হয়।

‘কলমকে কেন এত ভয়’ শীর্ষক সেশনে অংশ নেন  লেখক আহমাদ মোস্তফা কামাল, সাংবাদিক ও লেখক মাহবুব আজিজ। এছাড়া উইলিয়াম ডালরিম্পল রচিত  কোহিনূর: দ্য হিস্টোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড’স মোস্ট ইনফেমাস ডায়মন্ড বইয়ের গল্প নিয়ে স্টোরি অব কোহিনুর শীর্ষক সেশন অনুষ্ঠিত হয়। সঞ্চালনা করেন সাদাফ সায্‌ সিদ্দিকী। 

ভাস্কর নভেরা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় ‘ডিসপ্লেসমেন্ট শীর্ষক আলোচনা’। এতে অংশ নেন লেখক জেস বল, ডেভিড জেলে। সঞ্চালনা করেন কথাসাহিত্যিক সর্বরী আহমেদ।  ‘কমিউনিজম অ্যান্ড জায়ানিজম: আনএক্সপেক্টেড ফিউচার’ শীর্ষক আলোচনায় অংশ নেন চার্লস গ্লাস, সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, ডমিনিক জিগলার, রিচার্ড লয়েড পেরি। সঞ্চালনা করেন বি রোলেট।

‘১৯৭৪ দ্য সাইলেন্ট ইয়ার’ শীর্ষক আলোচনায় উঠে আসে চুয়াত্তরের মনন্তরের কথা। গর্গ চ্যাটার্জির সঞ্চালনায় এতে অংশ নেন নাওমী হোসেন ও সৈয়দ বদরুল আহসান।

কবি শামসুর রাহমান অডিটোরিয়ামে ‘ব্লোন টু ইটস বিডস’ শীর্ষক একটি আলোচনায় অংশ নেন অনুক অরুপ্রাগাজম, ক্যাথরিন ল্যাসি, করণ মহাজন। আলোচনাটি সঞ্চালনা করেন এলিনর শ্যান্ডলার।  ‘সিজলেজ চ্যাটার অব ড্যামন’ শীর্ষক আলোচনায় বাংলাদেশের তরুণ লেখক ইখতিসাদ আহমেদের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন শ্রীলংকার বর্ষিয়ান সাহিত্যিক অশোক ফেরি। 

শামসুর রাহমান মিলনায়তনে দুপুরে অনুষ্ঠিত হয় ‘ভাষার রাজনীতি ও ভাষার অর্থনীতি’ শীর্ষক আলোচনা। এতে অংশ নেন কিন্নর রায়, সেবন্তি ঘোষ ও আলতাফ শাহনেওয়াজ। সঞ্চালনায় ছিলেন হামিম কামরুল হক।

‘সিরিয়া ওয়ার উইদাউট এন্ড’ শীর্ষক আলোচনায় বিবিসির সাংবাদিক জাস্টিন রোলেট, সাংবাদিক চার্লস গ্লাস ও অধ্যাপক আজিম ইব্রাহিম অংশ নেন।

আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে খাদেমুল ইসলামের সঞ্চালনায় আলোচনায় বসেন ব্রিটিশ নাট্যকার ডেভিড হেয়ার।  ‘দ্য ব্লু টর্চ পেপার’ শীর্ষক আলোচনায় ডেভিড হেয়ারের জীবনী উঠে আসে।

‘ধর্ষণ পুরুষের ক্ষমতা, পৌরুষের অক্ষমতা’ শীর্ষক সেশন অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিক মুন্নী সাহার সঞ্চালনায় এতে অংশ নেন আনোয়ারা সৈয়দ হক, সাদেকা হালিম, রিতা দাস ও বীণা বিশ্বাস। 

দিনের শেষ ভাগে আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় ব্রিটিশ সাহিত্য ম্যাগাজিন গ্রান্টার মোড়ক উন্মোচন।  মোড়ক উন্মোচনে ছিলেন গ্রান্টার অনলাইন এডিটর।

এদিকে শেষ বিকেলে ছিলেন কবি হেলাল হাফিজ। তিনি স্বরচিত সাতটি কবিতা পাঠ করেন। এছাড়া নাইজেরিয়ান সাহিত্যিক বেন ওকরি ও টিল্ডা সুইন্টন নিজেদের লেখা থেকে পাঠ করেন একই মঞ্চে।

সন্ধ্যায় সমাপনী আয়োজনে ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তিনি ঘোষণা করেন দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম সম্মানজনক সাহিত্য পুরস্কার ডিএসসি প্রাইজ। এবছর এই পুরস্কার পান শ্রীলংকার সাহিত্যিক অনুক অরুদপ্রগাসম। ‘স্টোরি অফ অ্যা ব্রিফ ম্যারেজ’ উপন্যাসটির জন্য তিনি এই পুরস্কার পান।

এসময় মঞ্চে ছিলেন ডিএসসি সাহিত্য পুরস্কারের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সারিনা নারুলা ও অন্যান্য বিচারকগণ। পুরস্কারের সম্পূর্ণ অর্থ রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য কাজ করা প্রতিষ্ঠানকে দান করেছেন শ্রীলংকার এই তরুণ সাহিত্যিক।

নানা আয়োজনে শিশুদের জন্যও ছিলো চার থেকে ৫টি সেশন। অংক শেখা, গল্প বলা, নন্দনা সেনের গল্প বলাসহ আরো কয়েকটি আয়োজন। 

পিআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়