close
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ | ০৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

ঘুমের পর ঘাড়ে বা পায়ে ব্যথা হওয়া কোনো রোগ না

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ২০:০০ | আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ২০:৩০
সুস্থ জীবনযাপনে আমদের সচেতন থাকা খুবই জরুরি। এজন্য স্বাভাবিক স্বাস্থ্য সচেতনতা ছাড়াও ডাক্তারের পরামর্শ প্রয়োজন। এজন্য আরটিভিতে সরাসরি সম্প্রচারিত স্বাস্থ্যবিষয়ক পরামর্শমূলক ‘সেভলন সুস্থ থাকুন’ আনুষ্ঠানটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

আজকের আলোচনার বিষয় দুর্ঘটনার কারণে হাড়ের সমস্যা, চিকিৎসা ও প্রতিরোধ। এ বিষয় সম্পর্কে জানাবেন অর্থোপ্লাস্টি ও ট্রমা সার্জন অধ্যাপক ডা. আমজাদ হোসেন।

১. শীতের শুরুতেই শরীরকে কর্মক্ষম বা ফিট রাখার জন্য আমাদের করণীয় কী?

উত্তর : আসলে সব সময়ই আমাদের শরীরকে ফিট রাখা প্রয়োজন। আর শরীরকে সুস্থ রাখতে গেলে নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে। আসলে নিয়মিত ব্যায়াম করলে বা সারাদিন কাজের মধ্যে থাকলে শরীর সুস্থ রাখা সম্ভব। এছাড়া নিয়মিত হাঁটা বা সাঁতার কাটার মধ্যমেও শরীরকে সুস্থ রাখা সম্ভব।

২. অনেক সময় হাতে-পায়ে ব্যথা হলে আমরা গরম সেক দিয়ে থাকি। এভাবে গরম সেক দেয়া ঠিক কিনা?

উত্তর : শরীরে ব্যথা হলে গরম সেক দেয়া ভালো। কারণ গরম সেক দিলে শরীরের মাংস পেশি ও জয়েন্টগুলো ভালো থাকে।

৩. হঠাৎ কোনো দুর্ঘটনায় শরীরের হাড় ভেঙে গেলে তাৎক্ষণিক কী চিকিৎসা নিতে হবে?

উত্তর : দুর্ঘটনায় শরীরের হাড় ভেঙে গেলে বা কোনো জয়েন্ট ছুটে গেলে দ্রুত জরুরি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। যেভাবেই হোক তাকে হসপিটালে নিতে হবে এবং ভেঙে যাওয়া বা ছুটে যাওয়া জয়েন্টগুলো সঠিক জায়গায় ভালো করে বসাতে হবে।

৪. দীর্ঘ সময় ধরে মাজা ব্যথা হলে কী করণীয়?

উত্তর : এটি খুব সাধারণ একটি সমস্যা। এক্ষেত্রে প্রথমেই জানতে হবে তার বয়স, তার পেশা ও তার শারীরিক অবস্থা ( সে ওভার ওয়েট কিনা) এ বিষয়গুলো আগে লক্ষ্য রাখতে হবে। তার শরীরে ব্যথা হলে সে যদি আরো শুয়ে থাকে তাহলে তার ব্যথা বেড়ে যাওয়ার বেশি সম্ভাবনা থাকে। তাই তাকে কখনোই বলা উচিত না যে আপনি ব্যথা নিয়ে শুয়ে থাকেন। তখন জানতে হবে কেন ব্যথা হচ্ছে। সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে হবে।

৫.  দুর্ঘটনা জনিত কারণে যদি কারো মেরুদণ্ডের হাড় ভেঙে যায় তাহলে তাকে কিভাবে ধরে হসপিটালে নিতে হবে?

উত্তর :  মেরুদণ্ডের মধ্যে যদি আঘাত লাগে তাহলে চার হাত-পা দুর্বল হয়ে যেতে পারে। এক্ষেত্রে লম্বা কাঠের টুকরো বা এ ধরনের সোজা স্ট্রেচারের উপরে কমপক্ষে তিনজন আলতো করে ধরে তাকে স্ট্রেচারে সোজাভাবে শুইয়ে দিতে হবে। লক্ষ্য রাখতে হবে যেন কোনোভাবে ব্যথার স্থানে মোচর না লাগে বা বাঁকা না হয়। কোনোভাবে তাকে বসানো যাবে না। তাকে সোজাভাবেই শুইয়ে রাখতে হবে।

৬. অনেকেরই একটি সাধারণ সমস্যা যে ঘুম থেকে উঠে ঘাড়ে বা পায়ে ব্যথা অনুভব করে।

উত্তর : আসলে এটি কোন রোগ না। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চাইলে ওজন কমাতে হবে, নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে, পায়ের তালুর মাংসপেশীগুলোকে নিয়মিত সচল রাখা এবং সবসময় নরম জুতো পরা। আমাদের মনে রাখতে হবে আধুনিক এ যুগে হাঁটার জন্য আমরা মাটি বা নরম ঘাস পাই না। তাই আমাদের নরম জুতো পরতে হবে। কখনোই খালি পায়ে ঠাণ্ডা পাকা জায়গায় হাঁটা উচিত না।

আরকে/এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়