• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

মহাসাগরের তলদেশে বসে এবার মাছের সঙ্গে খেতে পারেন মাছ

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১১ আগস্ট ২০১৭, ১২:১৯ | আপডেট : ১১ আগস্ট ২০১৭, ১২:২৪
মহাসাগরের তলদেশে বসে কখনো মাছের সঙ্গে মাছ খাওয়ার কথা ভেবেছেন? বা খাবার খাচ্ছেন আর আপনাকে ঘিরে আছে সাগরের নীল জলরাশি, বাহারি মাছ, কিংবা প্রবাল। খুব অবাক লাগছে।

এমন রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা কিন্তু সত্যিই পেতে পারেন। তবে এজন্য আপনাকে যেতে হবে ভারত মহাসাগরে। মালদ্বীপের রাঙ্গালি দ্বীপের ইথা আন্ডারসি রেস্তোরায়।

অনেকটা স্বপ্নের মত। ভাবলেই যেনো অন্যরকম এক অনুভূতি। ভারত মহাসাগরের ১৬ ফুট গভীরে অ্যাকোয়ারিয়ামের মতো কাঁচঘেরা রেস্তোরা। সেখানে বসে খেতে খেতে দেখা যাবে সাগরের তলদেশে নীল জলরাশিতে ভেসে বেড়াচ্ছে হাঙর, স্টিংরেসহ রঙ-বেরঙের মাছের ঝাঁক, প্রবালের মত আরো কত কিছু।

সামুদ্রিক পরিবেশের এমন রোমাঞ্চ মিলবে মালদ্বীপের ‘ইথা আন্ডারসি রেস্তোরায়’। যা ভ্রমণপিপাসুদের দেয় অবিস্মরণীয় অভিজ্ঞতা।

‘ইথা’ মানে ‘মাদার অব পার্ল। রাঙ্গালি দ্বীপে লেগুণ আর প্রবালপ্রাচীরের ঢেউয়ের মধ্যে মুক্তার মতোই বসে আছে রেস্তোরাটি। বিশ্বের প্রথম সাগরতলের এ রেস্তোরায় ঢুকতে অতিথিদের ঘাটের সঙ্গে লাগানো খড়ের প্যাভিলিয়ন ধরে প্যাঁচানো ঢালু সিড়ি বেয়ে নামতে হয়। 

পা না ভিজিয়ে কোরালসমৃদ্ধ ভারত মহাসাগরের বাস্তব রং রূপ উপভোগে ২০০৫ সালে নির্মিত হয় রেস্তোরাটি।

রাঙ্গালিফিনোলহু পরিচালিত ‘হিলটন মালদ্বীপ রিসোর্ট অ্যান্ড স্পা’র এ রেস্তোরাটি মোড়ানো স্বচ্ছ পলিমার অ্যাক্রেলিকে।

সাগরতলের ২৭০ ডিগ্রী প্যানারোমিক ভিউতে বসে সাগরের বৈচিত্র্য উপভোগের সঙ্গে অতিথিরা আপ্যায়িত হন, স্থানীয় ডিসের সঙ্গে ইউরোপীয়-এশিয়ান ফিউশনে।

তবে সি ফুডই প্রচণ্ড টানে তাদের। রিসোর্টের নিজস্ব অতিথিদের জন্য খাবারের দাম শুরু একশো বিশ ডলার থেকে।

ইথায় একসঙ্গে আপ্যায়িত হতে পারেন ১৪ জন অতিথি।

আরকে/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়