close
ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৭ | ০৪ ভাদ্র ১৪২৪

রাজধানী থেকে উধাও ৪০ শতাংশ গাড়ি

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৮ এপ্রিল ২০১৭, ১৬:২৪ | আপডেট : ১৮ এপ্রিল ২০১৭, ১৮:০২
রাজধানীতে সিটিং সার্ভিস বন্ধ ঘোষণা করলেও মালিকরা নানা টালবাহানা শুরু করেছেন। অভিযান শুরুর পর থেকে প্রায় ৪০ শতাংশ গাড়ি উধাও হয়ে গেছে। নিজেদের ইমেজ সংকট রক্ষা করতে মালিকপক্ষ সিটিং সার্ভিস বন্ধের নামে আগের ভাড়া আদায় করে ঘোলাপানিতে মাছ শিকার করছেন। বললেন বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে সামনে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। 

জনমনে এখন প্রশ্ন, সিটিং বন্ধের পরও কেন যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে।  যাত্রীদের কাছ থেকে সরকারি চার্টে ভাড়া না নিয়ে বাড়তি ভাড়া নিচ্ছে তারা।

মোজাম্মেল বলেন, সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিভিন্ন সময় সিটিং সার্ভিসের ভাড়া নৈরাজ্য নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছেন।

এদিকে মঙ্গলবার সকালে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির মহাসচিব খোন্দকার এনায়েত উল্লাহ খান বলেন, বাসের সংকট নেই, সমস্যার কারণে অনেক গাড়ি গ্যারেজে রয়েছে। আবার যাদের কাগজপত্রে সমস্যা রয়েছে তারা অভিযানের ভয়ে রাস্তায় গাড়ি নামাচ্ছেন না। তবে তা খুব সামান্য। অভিযানের কারণে আগের তুলনায় অনিয়ম কমেছে।

সোমবার শাহবাগে অভিযানের কারণে রাজধানীতে বাস সার্ভিস বন্ধ রাখা প্রতিষ্ঠানগুলোকে হুশিয়ারি করে বিআরটিএ চেয়ারম্যান মশিউর রহমান  রুট পারমিট বাতিলের ঘোষণা দেন। 
গেলো রোববার বিআরটিএ ও মালিক সমিতি জরুরি মিটিং শেষে সিটিং, গেটলক বা স্পেশাল সার্ভিস বন্ধসহ রাজধানীতে অভিযানের ঘোষণা দেন বিআরটিএ চেয়ারম্যান। ৪ এপ্রিল সংবাদ সম্মেলনে ১৫ এপ্রিল থেকে ঢাকার বাস-মিনিবাসে সিটিং সার্ভিস  বাতিলের ঘোষণা দেয় পরিবহন মালিকদের সংগঠন ঢাকা সড়ক পরিবহন সমিতি।

এদিকে ৪র্থ দিনেও রাজধানীতে চলছে ফিটনেস বিহীন গাড়ি ও সিটিং সার্ভিসের বিরুদ্ধে বিআরটিএর অভিযান। অভিযানে সহায়তা করছে ডিএমপি ও বাস মালিক সমিতি।

এমসি/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়