মানসিক চাপ কমাবে চা

প্রকাশ | ০৬ জানুয়ারি ২০১৭, ১৬:০০ | আপডেট: ১০ জুলাই ২০১৭, ১৮:১২

অনলাইন ডেস্ক

আমরা কম বেশি সবাই চা পান করে থাকি। জানেন কি নানা প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে চায়ের স্বাদ যেমন বাড়ানো যায় তেমন উপকারও পাওয়া যায়। আমরা এখানে যে কয় ধরণের চায়ের কথা বলবো সেগুলোর কোনোটিতেই দুধ মেশানো চলবে না। তাহলে চলুন জেনে নেই সেই চা সম্পর্কে।

এলাচ চা : চায়ের সাথে কয়েকটি এলাচ দিয়ে দিন। এটি আপনার হজম শক্তি বাড়ানোর সাথে আরও অনেক কাজ করবে। এটি মাথাব্যথা কমায়, পেটের সমস্যা দূর করে এবং দেহ ঠাণ্ডা রাখতে সহায়তা করে।
দারুচিনি চা : দারুচিনি অত্যন্ত উচ্চমাত্রার অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসমৃদ্ধ একটি উপাদান। দারুচিনি চা দেহের কোলেস্টেরল মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।ফলে হৃদরোগের মতো মারাত্মক রোগও দূরে রাখা সম্ভব এ চা পান করে।

জাফরান চা : জাফরানের রয়েছে ক্যান্সার প্রতিরোধী উপাদান। এছাড়া এটি হৃদরোগ প্রতিরোধ করে ও দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতেও সহায়তা করে। তাই চায়ের সাথে সামান্য পরিমাণ জাফরান মিশিয়ে খেতে পারেণ।


ক্যামেলিয়া চা : ক্যামোমিল চা মানসিক চাপ কমাতে সহায়তা করে। রাতের খাবারের পর এক কাপ ক্যামোমিল চা উদ্বেগ দূর করে ঘুম আনতে সহায়তা করে। ত্বকের নানা সমস্যা দূর করতেও ক্যামোমিল কার্যকর।
গ্রিন চা : সচেতন মানুষের কাছে গ্রিন চায়ে কদর যথেষ্ট।এটি ওজন কমানো, ক্যান্সার রোধ ও কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ রাখতে সাহায্য করে।
আদা চা : আদা দিয়ে লিকার চা অনেকের কাছে খুব প্রিয়।এটি সর্দি-কাশির সমস্যা দূর করে।  
লেমনগ্রাস টি : এক ধরনের ঘাস থেকে এই চা তৈরি হয়।দুপুর বা রাতে খাবার পর লেমনগ্রাস টি খান। হজম হবে ভালো।
রোজ হিপ টি :  গোলাপের ফলের নির্যাস মেশানো এই চা আমাদের দেহের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। ত্বকের সমস্যা সমাধান করে।
পুদিনা চা : পুদিনা পাতার রস হজম সহজ করে । পাশাপাশি পেটের ভেতরে জমা হওয়া চর্বি গলে  যায়। পিত্ত ও যকৃতেরও নানা উপকার করে এই পুদিনা। তাই পুদিনা পাতা দিয়ে খেতে পারণ চা।


সিনামন টি : ওজন কমাতে এই চায়ের জুড়ি মেলা ভার। ব্লাড সুগার কমাতেও সাহায্য করে সিনামন টি ।
ল্যাভেন্ডার টি :  ল্যাভেন্ডার ফুলের নির্যাস চায়ের সঙ্গে মিশিয়ে তৈরি হয় এই সুগন্ধী চা। হাঁপানি, ঠাণ্ডা লাগা, আলসার, ব্যথা, শ্বাসযন্ত্রের সমস্যার উপশম করে এই ল্যাভেন্ডার টি।
লেমন বাম টি :  চায়ের সাথে ছোট এক টুকরো লেবু নিন। এই চা পানে সারা দিনের সব ক্লান্তি ভুলে যাবেন।


আরকে/জেএইচ