• ঢাকা সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

শখের গিটার

লাইফস্টাইল ডেস্ক,আরটিভি অনলাইন
|  ১২ নভেম্বর ২০১৬, ১২:৫০ | আপডেট : ১২ নভেম্বর ২০১৬, ১৩:১৯
রাস্তায় হামেশাই দেখা মেলে কাঁধে লম্বা ব্যাগ ঝোলানো তরুণের । ব্যাগটি দেখলেই বোঝা যায়, এতে গিটার রয়েছে। গিটার সবা্রই পরিচিত একটি বাদ্যযন্ত্র।

এখনকার তরুণদের কাছে গিটার বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। অনেকেই গিটার শিখছেন। কেউ শখের বশে, কেউ বা প্রফেশনালি । এখন অনেক পরিচিত দৃশ্য হলো, বন্ধুরা আড্ডায়  বসে গিটারের সাথে তাল মিলিয়ে গেয়ে চলেছেন। তারুণ্যের কাছে গিটার বাজানো বর্তমানে ট্রেন্ড হয়ে উঠছে। শুধু তরুণরাই নয়, গিটারের টুং টাং শুনলে অনেকেরই মনের ভেতর একধরনের সুর খেলা করে।

গিটারের ছন্দে সুর তুলতে পছন্দ করে অনেকেই, তরুণ প্রজন্মের মধ্যে এখন গিটার শেখার ইচ্ছা তৈরি হচ্ছে। প্রযুক্তির কল্যাণে এখনকার তরুণরা অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। ইউটিউব থেকেই তারা গিটার বাজানোর প্রাথমিক ধাপগুলো শিখে নিচ্ছে অনায়াসে। এভাবেই শিখতে শিখতে নেশা  এবং একসময়ে পেশা হয়ে ওঠে অনেকের কাছে।

কথা হচ্ছে, কোন ধরনের গিটার কেনা যায় কিংবা কোথায় শেখা যায় তা অনেকেই জানতে চায়। প্রাথমিকভাবে গিটার শেখার জন্য বাংলাদেশ, ইন্ডিয়া, চীন, জাপান, কোরিয়ার গিটার রয়েছে। শেখার জন্য চাইলে এগুলোর যেকোনো একটি কিনে শুরু করা যেতে পারে।

শেখার জন্য

দক্ষ গিটার বাদকের কাছে প্রশিক্ষণ সাহায্য নেয়া যেতে পারে। গিটার শিখতে যেতে পারেন অলিয়ঁস ফ্রঁসেজ, রাশিয়ান কালচারাল সেন্টার, জার্মান কালচারাল সেন্টারসহ টিএসসি চত্বর, ফুলার রোড বা ছবির হাটের যেকোনো স্থানে। তবে অভিজ্ঞ প্রশিক্ষক বাসায় রেখেও গিটার বাজানো শিখতে পারেন।

গিটারের রকমফের

সাউন্ডের বৈচিত্র্য ও আকৃতির ভিত্তিতে গিটারকে সাধারণত দুটি ভাগে ভাগ করা হয়। যার একটি হয়ে থাকে হাওয়াইন আর অন্যটি স্প্যানিশ।বাংলাদেশের তরুণরা যে গিটার শিখতে চায়, তা হলো অ্যাকুস্টিক স্প্যানিশ গিটার।  

অনেকে হাওয়াইয়ান গিটারও শেখে, তবে তা মূলত কেবল একক যন্ত্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়, গান গাওয়ার সময় অনুষঙ্গ হিসেবে নয়।

সাধারণত বিভিন্ন পিচ ও সুর বাজানোর ক্ষেত্রে  এই হাওয়াইন  গিটার ব্যবহার হয়ে থাকে। তামা বা বিশেষ ধরনের আংটির মাধ্যমে এই গিটার বাজানো হয়। স্প্যানিশ গিটার সহজে বহনযোগ্য ও গান বাজানোর ক্ষেত্রে সহজ হওয়ায় এই গিটার এখন সব তরুণ-তরুণীর কাছে খুবই পছন্দের। তবে এই গিটারের মধ্যেও দুটি ভিন্নতা রয়েছে। যার একটি অ্যাকুস্টিক গিটার আর অন্যটি ইলেকট্রিক গিটার।

ঘরোয়া আড্ডা, ক্যাম্পাস বা বন্ধুদের আড্ডায় অ্যাকুস্টিক গিটারের গুরুত্ব বেশি। এ গিটারগুলোর মধ্যে আরও রয়েছে ফ্লেমিংগো, ক্লাসিক্যাল, স্প্যানিশ জিপসি ইত্যাদি গিটার। এ গিটারগুলো চীন, জাপান, কোরিয়া ও ভারতসহ বিভিন্ন দেশে নির্মাণ হয়ে থাকে। ইলেকট্রিক গিটার-সাউন্ড ও আকৃতির দিক থেকে এই গিটারটি টেলিকাস্টার, লেসপল ও স্ট্রাটোকাস্টার ধরনের হয়ে থাকে। লাইভ কনসার্ট, বিভিন্ন মিউজিক্যাল শো ও স্টুডিওতে সাধারণত এ গিটারগুলো ব্যবহার করা হয়।

পাওয়া যাবে

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের যেকোনো বাদ্যযন্ত্রের দোকানে পাওয়া যাবে এ ধরনের গিটার। তবে উন্নত মানসম্পন্ন গিটার কিনতে যেতে পারেন রাজধানীর সায়েন্স ল্যাব মোড়। এছাড়া আজিজ সুপার মার্কেটেও কিছু ভালো  দোকান রয়েছে গিটারের।

দাম পড়বে

গিটারের সর্বনিম্ন দাম ২ হাজার টাকা। তবে স্প্যানিশ গিটারের দাম ২ থেকে ৫ হাজার টাকা। আবার অ্যাকুস্টিক গিটারের দাম ৮ থেকে ২৫ হাজার টাকা। বেজ গিটারের দাম ৮ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা। আইবানেজ গিটারের দাম ১২ থেকে ৭০ হাজার টাকা। গিভসন গিটার ৭ থেকে ১২ হাজার, জ্যাকসনের ইলেকট্রিক গিটার ৩৫ থেকে এক লাখ ২০ হাজার ও টিজিএম গিটারের দাম ৬ হাজার ৫০০ থেকে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত।

আরকে/এসজেড

 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়