বেছে নিন লিপস্টিকের সঠিক রঙ

প্রকাশ | ১৯ অক্টোবর ২০১৭, ১৫:০৩ | আপডেট: ১৯ অক্টোবর ২০১৭, ১৫:১৩

কেয়া আক্তার

মুখের সঠিক সৌন্দর্য পেতে সঠিক লিপস্টিকের রং নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ত্বকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে সঠিক লিপস্টিকের রঙ নির্বাচন জরুরি। তবে যেকোনো রঙের লিপস্টিক আপনাকে নাও মানাতে পারে।

এ কারণে বিভিন্ন শেডের লিপস্টিক একবার ট্রাই করে দেখতে পারেন। আপনি ভালো বুঝবেন কোনটাতে আপনাকে ভাল মানাচ্ছে।

এমন রঙ বেছে নেন যা আপনার ঠোঁটের রঙ ও ত্বকের টোনের সঙ্গে মানানসই হয়। তাহলে জেনে নিন ত্বকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে সঠিক লিপস্টিকের রঙ নির্বাচন সম্পর্কে।

  • যাদের ঠোঁটের আকার বড় তারা ব্রাউন, পার্পল বা ব্রোঞ্জ শেডের লিপস্টিক ব্যবহার করতে পারেন।
  • যাদের ঠোঁট পাতলা তারা গোলাপি, পিচ ও অ্যাপ্রিকট শেড ব্যবহার করতে পারেন।
  • দিনের বেলা হালকা রঙ এবং রাতের বেলায় গাঢ় রঙ বেশি ভালো মানায়।
  • যদি আপনি গাঢ় লিপশেড ব্যবহার করেন তবে মুখের মেকআপ বেশি চড়া করবেন না। আর যদি ঠোঁটে হালকা শেড ব্যবহার করেন তবে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যাতে চোখের মেকআপ চড়া হয়।
  • লিপস্টিকের এমন রঙ নির্বাচন করুন যা বিনা মেকআপেও আপনাকে মানাবে।
  • আপনার ত্বক যদি তৈলাক্ত হয় তবে আপনি লাল অথবা বাদামি শেড ব্যবহার করতে পারেন।
  • গায়ের রঙ কালো হলে পাম বা ওয়াইন শেড ব্যবহার করুন এবং ফর্সা ত্বক হলে ক্যারামেল বা গাঢ় গোলাপি ব্যবহার করুন।
  • যদি রাতে কোনো পার্টি থাকে তবে অবশ্যই একটু গাঢ় শেডের লিপস্টিক ব্যবহার করুন।
  • লিপস্টিক শেডের সীমা বরাবর ওই একই রঙের লিপ লাইনার ব্যবহার করুন।
  • আর যদি একই রঙ মেখে আপনি ক্লান্ত হয়ে থাকেন তবে অনেকগুলি শেড একসঙ্গে মিশিয়ে নতুন একটা রঙ তৈরি করাই যায়।
  • লিপস্টিককে যদি আরও আকর্ষণীয় করতে চান তবে সামান্য সোনালি রঙের আইশ্যাডো ঠোঁটের মাঝখানে দিয়ে ব্লেন্ড করে নিতে পারেন। তবে লিপস্টিক বাছার সময় কখনোই তা সরাসরি ঠোঁটে ব্যবহার করবেন না। এটি অস্বাস্থ্যকর হতে পারে। হাতের কব্জি বা আঙুলে রঙ পরীক্ষা করুন। আর অবশ্যই লিপস্টিক বা টিউব দেখে বিচার করবেন না এটি আপনার মুখে নাও মানাতে পারে।

আরকে/এমকে