সপ্তমী হোক শিশির ধোয়া

প্রকাশ | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১:২৭ | আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১:৩৯

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

আকাশে সাদা মেঘের আনাগোনা শুরু হয়েছে। হঠাৎ হঠাৎ বৃষ্টি সত্ত্বেও প্রকৃতি প্রস্তুত শারদ উৎসবকে স্বাগত জানাতে। উৎসবের আমেজ ও আনন্দে মাততে আমরা ভালোবাসি।

আরো একবার শরৎ সাজে নিজেকে সাজানোর উপলক্ষ নিয়েই হাজির দুর্গোৎসব।

তাহলে জেনে নিন কেমন হবে এবারের শারদ উৎসবে ষষ্ঠী ও সপ্তমীর সাজ।
ষষ্ঠীর দিন
ষষ্ঠীর দিন পূজার পাশাপাশি ঘরোয়া আরো অনেক কাজ থাকে। মণ্ডপে মণ্ডপে ঘুরতে যাওয়ার আনন্দটাও অনেক। তারপরও নিজের সাজের দিকে একটু নজর তো দিতেই হবে।

সাধারণত পূজার রং হিসেবে প্রাধান্য পায় সাদা, হালকা সাদা, লাল আর গেরুয়া। এসব রঙের শাড়িতে ব্লক প্রিন্টের কাজ বেশ ভালো ফোটে।

তবে এবার পূজার শাড়িতে সিল্কের পাশাপাশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ব্লক প্রিন্ট করা সুতি শাড়ি।

ষষ্ঠীর দিন সাজের ক্ষেত্রে সকালের দিকে যারা বেরুবেন তারা শাড়ি পরতে পারেন।তাঁত, কটন, জামদানি কিংবা মানানসই শাড়ি পরতে পারেন।

তবে সাজটা একটু হালকা হলেই ভালো। চোখে হালকা শ্যাডসহ চিকন লাইনার ও পছন্দসই রঙের লিপস্টিক পরুন।

ছোটদের জন্য হালকা এবং ন্যাচারাল সাজই মানানসই।


সপ্তমীর দিন
ষষ্ঠীর সাজের চেয়ে সপ্তমীর সাজ একটু ভারি হতে পারে। তেমন কোনো আয়োজন না থাকলেও পূজামণ্ডপ এলাকা ঠিকই সরগরম থাকে।

তাই যারা সকালে বের হতে চান তারা মেকআপের শুরুতে মুখ ভালো করে পরিষ্কার করে ধুয়ে সানস্ক্রিন লোশন লাগাতে ভুলবেন না। কারণ সানস্ক্রিন ব্যবহার না করলে তীব্র রোদে ত্বকের ক্ষতি হতে পারে।

আর এ প্রচণ্ড রোদে মেকআপ র্দীঘস্থায়ী করতে সম্ভব হলে প্রাইমার ব্যবহার করুন। প্রাইমার ত্বককে মসৃণ করে তোলে। প্রাইমারের পর মুখের খুঁতগুলি কনসিলারের সাহায্যে ঢেকে নিন।

সকালের সাজে ফাউন্ডেশনের ব্যবহার না করাই ভালো।

এসময় ত্বকের রঙয়ের সঙ্গে মিলিয়ে হালকা করে ফেস পাউডার ব্যবহার করতে পারেন।

সপ্তমীর দিন লিপস্টিক, শ্যাডো, মাসকারা, লাইনার সবই একটু ভারি হবে।

ষষ্ঠীর মতো হালকা পোশাকে থাকতে চাইলে কাতান ও জর্জেট শাড়ি পরতে পারেন।

আরকে/জেবি