• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

গোলাপি হ্রদ রেতবা

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ০৭ জুলাই ২০১৭, ১৫:৩২
লেক রেতবা। বিশ্বখ্যাত গোলাপি রঙের হ্রদ। সেনেগালের উপকূলেই মিলবে এ অদ্ভুত হ্রদটির দেখা। এর আয়তন মাত্র  তিন বর্গ কিলোমিটার আর গভীরতা সর্বোচ্চ দশ ফুটের কাছাকাছি। লবণ আহরণের জন্য বিখ্যাত এ হ্রদটির পানি শুষ্ক মৌসুমে স্ট্রবেবির মতো উজ্জ্বল গোলাপি হয়। যা বিস্ময় জাগায় বিশ্বের ভ্রমণপিপাসুদের মনে। 

প্রথম দেখায় লেক রেতবার পানিকে প্রযুক্তির সর্বাধুনিক ব্যবহার ভেবে ভুল করবেন অনেকেই। আসলে এর পানির রঙ কিন্তু গোলাপিই। সেনেগালের রাজধানী ডাকার থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে মিলবে এমন স্ট্রবেরি মিল্কশেক হ্রদের দেখা।

কেপ ভার্ত উপদ্বীপে প্রকৃতির অপার সৃষ্টি লেক রেতবা। হ্রদের তীরে লবণের পাহাড়, লেকের গোলাপি জলরাশি এবং অন্যপাড়ের সোনালি বালুকাবেলা তৈরি করে এ অপার্থিব সৌন্দর্য।

প্রায় তিন বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে বিস্তৃত এ হ্রদটি সমুদ্রপৃষ্ঠের গভীরে হওয়ায় লবণাক্ততার পরিমাণ প্রকট। সূর্যের তাপও প্রখর।

‘ডুনালাইলা সালিনা’ শৈবালের জন্য পানির রঙ হয় গোলাপি। শৈবালগুলো এক ধরনের রঞ্জক পদার্থ উৎপন্ন ও শোষণ করে সূর্যরশ্মির সংস্পর্শে হয় অনেক শক্তিশালী। শুষ্ক মৌসুমেও এ হ্রদের পানি উজ্জ্বল গোলাপি হলেও বর্ষায় আসে ফিকে হয়ে। 

হ্রদটিকে ঘিরে কমতি ছিলো না রহস্য-রোমাঞ্চ-বিস্ময়ের। লবণ আহরণের জন্য বিখ্যাত লেক রেতবাকে ভাবা হতো অভিশপ্ত। তবে এখন স্থানীয়দের কাছে সেটা আশীর্বাদ। মাছ সংরক্ষণে লবণ আহরণের উৎকৃষ্ট জায়গা এটি। হ্রদের পানি গোলাপি হলেও সেখানকার লবণ কিন্তু ঝকঝকে সাদা।

লেক রেতবা শুধু সেনেগালবাসীর কাছেই বিস্ময়ের নয় বিশ্বের ভ্রমণপিপাসুদের কাছেও আছে সীমাহীন আকর্ষণ।

আরকে/এপি 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়