• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

ঈদ আনন্দের ছোঁয়া লাগুক অন্দরে

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ২৩ জুন ২০১৭, ১৪:২৯ | আপডেট : ২৩ জুন ২০১৭, ১৪:৩৬
পবিত্র রমজান মাসের ভাবগাম্ভীর্য মুসলমান ধর্মাবলম্বী মানুষের কাছে সর্বোচ্চ মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত। দীর্ঘ একমাসের সিয়াম সাধনায় সেহরি আর ইফতার এক বিশাল পরিবর্তন নিয়ে আসে প্রাত্যহিক জীবনে। সংযমের পাশাপাশি ঈদের উত্তেজনা বড় ছোট সবার মাঝেই কাজ করে। আসলে একমাস রোজা রাখার পর ঈদের আনন্দ যেন পবিত্র রমজান মাসকে পরিপূর্ণ করে তোলে।

পুরো রমজান মাস জুড়েই ধর্মপ্রাণ মানুষের কাছে যথাসাধ্য চাহিদা পূরণ করা ছাড়াও কিছু বাড়তি শখ এবং ইচ্ছে পূরণেরও তাগিদ অনুভব হয়। নতুন জামাকাপড়ের সঙ্গে অন্দরের নন্দনে মেতে ওঠে প্রায় সবাই এসময়। এছাড়া পরিবার পরিজনের পাশাপাশি মেহমান আপ্যায়ন কিন্তু বেশ মুখ্য বিষয় হয়ে দাঁড়ায় পুরো রমজান মাস এবং ঈদের ছুটিতে।

এবারের রমজানের শুরু থেকেই আবহাওয়ার চলছে বৈরি তারতম্য। তবে রোদ বৃষ্টির এই অসম তারতম্যে রমজান আর ঈদের মৌসুমে অন্দর থাকা চাই একদম ঝকঝকে আর সজীব। তাই রমজানের শুরু থেকে আসলে ঈদের বাড়তি প্রস্তুতি নিয়ে নেয়া ভালো।

ঈদের আগেই বাসার পর্দা কুশন কভার এমনকি সোফার কভার যদি পরিবর্তন করার ইচ্ছে থাকে তবে বদলে নেয়াই ভালো। কিন্তু এই মুহূর্তে নতুন করে বদলে ফেলার চিন্তার চেয়ে ধুয়ে শুকিয়ে ভালোভাবে আয়রন করে গুছিয়ে নেয়াটাই ভালো হবে। তবে এখন একটু ঘুরে খুঁজে কিনতে পারলে বাজারেই অনেক তৈরি জিনিস খুঁজে পাবেন।

পছন্দ আর মাপ অনুযায়ী এসব কভার আর পর্দা খুঁজে পাওয়া খুব বেশি কঠিন কিছু না। কিন্তু সবসময়ের জন্যই খেয়াল রাখতে হবে, পর্দার রঙ আর ঘরের রঙের সঙ্গে কালার কো-অর্ডিনেট করাও জরুরি। ঘরে আলোর প্রবেশকে যদি করতে চান সীমিত তাহলে ভারি পর্দা ব্যবহার করা যেতে পারে। গরমের সময় সূর্যের তাপ থেকে ভারি পর্দা আপনাকে অনেকটা বাড়তি তাপ থেকে রক্ষা করবে।

সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো ঈদের সময় মেহমানদারি। এইসময় শুধুমাত্র ভালো ভালো রান্না করলেই তো চলবে না, বাড়িতে আসা অতিথিদের আপ্যায়ন করে তাক লাগাতে হলে সেই খাবার পরিবেশনও করতে হবে সুন্দর পরিবেশে। সেজন্য ঈদের মৌসুমে আকর্ষণীয়ভাবে খাবার রুম ও টেবিল সাজিয়ে তুলুন। টেবিলক্লথটি পরিষ্কার করে ফেলুন সময় থাকতেই।

চাইলে রঙিন অথবা পছন্দসই কিছু ভিন্ন আকৃতির বা মাপের টেবিলম্যাট ব্যবহার করতে পারেন। কিংবা নতুন হোক বা পুরনো পছন্দের রঙের টেবিলক্লথটি ব্যবহার করতে পারেন সামঞ্জস্য অনুযায়ী। তবে ভালো হয় পর্দা ও দেয়ালের রঙের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে টেবিলক্লথ বাছাই করলে। তাছাড়া, দেয়ালে কোনো বড় পেইন্টিং বা ছোট কোনো ওয়ালহেঙ্গিং অথবা শোপিস ঝুলিয়ে দিলেও রুমে ভিন্নতা চলে আসবে।

আরকে/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়