• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

ঈদ ফ্যাশনে হাতঘড়ি

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ১০ জুন ২০১৭, ১১:৫৯

ঈদ ফ্যাশনে সমান গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ যে জিনিসটি তার নাম হাতঘড়ি। প্রয়োজন আর ফ্যাশনের সম্মিলিত এক নাম হতে পারে হাতঘড়ি। আপনার হাতে যদি একটি স্টাইলিশ ঘড়ি থাকে তাহলে আপনার মন ভালো থাকবে আর ফ্যাশনের মুড হবে একটু অন্য রকম।

আপনি যেই স্টাইলে থাকতে পছন্দ করেন সেটার কথা মাথায় রেখেই ঘড়ি পছন্দ করুন। সেক্ষেত্রে হতে পারে ক্যাজুয়াল, ফর্মাল অথবা এক্সক্লুসিভ ডিজাইনের যেকোনো কিছু। বর্তমানে তরুণদের পছন্দের তুঙ্গে রয়েছে মোটা চেইন আর বড় ডায়ালের ঘড়ি। টিনএজাররা বরাবরই স্পোর্টস ঘড়ি পরতে বেশি পছন্দ করে। কেউ আবার পছন্দের হিরোর পছন্দকে নিজের পছন্দে পরিণত করেন। তাদের গেটআপ আর ঘড়ি দুটোই ভক্তদের রপ্ত করা চাই।

কখনো বন্ধুমহল, কখনো বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণ, সঙ্গে রয়েছে আবার অফিস। এই হচ্ছে আমাদের জীবন। বন্ধুদের সঙ্গে ঘোরাঘুরি বা আড্ডা আর অফিসের পরিবেশ তো আর এক নয়। তাই একেক সময় বেছে নিতে হয় একেক পোশাক। আর সেই অনুযায়ী বেছে নিতে হয় হাতের ঘড়িটিও।

অফিসের আনুষ্ঠানিক পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে বেছে নিতে পারেন ছোট কিংবা মাঝারি ডায়ালের হাতঘড়ি। শাড়ি বা সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে খুব সহজেই মানিয়ে যাবে এ ধরনের ঘড়ি। চাইলে কামিজের সঙ্গে বেছে নিতে পারেন একটু বড় ডায়ালের হাতঘড়িও। পাশ্চাত্য ঘরানার পোশাক কিংবা ফতুয়ার সঙ্গেও বড় ডায়াল ও চওড়া বেল্টের হাতঘড়ি কিন্তু বেশ মানিয়ে যাবে।

এখনকার হাতঘড়ির বাজারগুলোতেও ভিন্ন ব্র্যান্ডের প্রায় সব হাতঘড়িই পাওয়া যায়। ঘড়ির দাম নির্ভর করে এটি কোন ব্র্যান্ডের ঘড়ি তার ওপর। প্রতিবছরই প্রচলিত স্টাইল এবং চাহিদার কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন ব্র্যান্ড বাজারজাত করে থাকে নানা ধাঁচের হাতঘড়ি। ক্রেডেন্স, টিসট, ক্যাসিও, মন্ট্রেক্স, টাইটান, ফাস্ট ট্র্যাক, ওমেগা, গুচি, সিকো, র‌্যাডোসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডে পাবেন বিভিন্ন ডিজাইন আর আকৃতির হাতঘড়ি।

বিভিন্ন রঙের হাতঘড়ির জন্য যেতে পারেন বসুন্ধরা সিটি, গুলশান ডিসিসি মার্কেটে, রাপা প্লাজা, সীমান্ত স্কয়ার, যমুনা ফিউচার পার্কসহ বিভিন্ন শপিং মলে।

এ ছাড়াও মেয়েদের বিভিন্ন ডিজাইনের শৌখিন হাতঘড়ি পাবেন নিউমার্কেট কিংবা বায়তুল মোকাররম মার্কেটে। আর এখন তো অনলাইনের বিভিন্ন দোকান থেকে খুব সহজেই বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের হাতঘড়িটি।

আরকে/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়