• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

দাড়ি রাখতে পারবেন না বিমানবাহিনীর কোনো সদস্য

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৪:১১
ভারতীয় বিমানবাহিনীর কোনো কর্মকর্তা ও সদস্য দাড়ি রাখতে পারবেন না। এ নিয়ম মেনে চলতে হবে প্রত্যেককেই। বৃহস্পতিবার বিষয়টি স্পষ্ট করে দিলেন দেশটির সুপ্রিমকোর্ট। ধর্মভেদে কঠোর নিয়মের অন্যথা হবে না।

বিমানবাহিনী থেকে বরখাস্ত হওয়া এক মুসলিম আবেদনকারী আনসারি আফতাব দাড়ি রাখার পক্ষে আদেদন করে সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তার দাবি ছিল, শিখ ধর্মাবলম্বীদের যদি পাগড়ি পরার অধিকার থাকে, তাহলে মুসলিমদেরও বিমানবাহিনীতে দাড়ি রাখার অধিকার দেয়া উচিত।

২০০৮ সালে আনসারি আহমেদকে দাড়ি রাখার ‘অপরাধে’ বিমানবাহিনী থেকে বরখাস্ত করা হয়। পরে তিনি সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হন। ওই বছরই আরো দু’জন বিমানকর্মী একই মর্মে মামলা দায়ের করেন।

শীর্ষ আদালতকে বিমানবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, সব মুসলিম ধর্মালম্বী দাড়ি রাখেন না। দাড়ি দেখে মুসলিমদের চিহ্নিত করা যায় না। দাড়ি রাখাটা তাদের ‘শখের’ ব্যাপার। ইসলাম ধর্মে কোথাও বলা নেই যে, চুল বা দাড়ি বড় রাখতেই হবে।

ওই বছরের শেষে তৎকালীন ইউপিএ সরকারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী একে অ্যান্টনি অবশ্য জানান, তারা চান না সংখ্যালঘু মানুষজন কোনো কারণে বঞ্চিত হোন। যদিও পরে ইউপিএ সরকার বিষয়টি নিয়ে নতুন করে চিন্তাভাবনা করার জন্য আদালতের কাছে সময় চায়।

সেই মামলারই চূড়ান্ত শুনানি ছিল গেলো বৃহস্পতিবার। আদালতের মতে, নিয়মানুবর্তিতার মধ্যে ধর্মকে এনে ফেললে চলবে না।

এস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়