ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার পরিকল্পনাকারী বাংলাদেশির যাবজ্জীবন

প্রকাশ | ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৪৭ | আপডেট: ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:০২

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসো মে’কে হত্যার ষড়যন্ত্রের অভিযোগে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। শুক্রবার আদালতের রায়ে নাইমুর জাকারিয়া রহমান নামের ওই যুবককে কমপক্ষে ৩০ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়।

শুক্রবার বিচারপতি হ্যাডন-কেইভ, নাইমুরকে কমপক্ষে ৩০ বছরের কারাদণ্ড দেন।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ভারতে মাওবাদীদের সঙ্গে বাম বুদ্ধিজীবীদের যোগসাজশ রয়েছে, দাবি পুলিশের
-------------------------------------------------------

বিচারক তার রায়ে বলেন, তিনি সমাজের জন্য বিপজ্জনক। এটা বলা মুশকিল যে তিনি কখন এই উগ্র মনোভাব থেকে সরে আসবেন এবং সমাজের জন্যে আর ক্ষতিকর হবেন না।

২১ বছর বয়সী নাইমুর সন্ত্রাসী পরিকল্পনার জন্য গত মাসে দোষী সাব্যস্ত হন। সেখানে বলা হয়, বোমা মেরে ১০ ডাউনিং স্ট্রিটের দরজা উড়িয়ে, গার্ডদের হত্যা করে ছুরিকাঘাতে বা গুলি করে থেরেসা মে’কে হত্যার পরিকল্পনা ছিল নাইমুরের। যদিও নাইমুর সেসময় তার বিরুদ্ধে আনা সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন।

গত বছর লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থা এমআই ফাইভের সন্ত্রাস দমন কর্মকর্তাদের একটি ছদ্মবেশী অভিযানে তাকে আটক করা হয়।

ছদ্মবেশী গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের নাইমুর বলেন, আমি পার্লামেন্টে আত্মঘাতী বোমা হামলা চালাতে চাই। আমি থেরেসা মেকে হত্যার চেষ্টা করতে চাই।

নাইমুর বলেন, এখানে বড় গ্যাস ট্যাংকারসহ লরি রয়েছে। যদি কেউ লরি চালিয়ে পার্লামেন্টের কাছে নিয়ে যায় তাহলে আমি বোমা হামলা চালাবো।

আইএস জঙ্গির ছদ্মবেশে থাকা একজন এফবিআই গোয়েন্দার সঙ্গে নাইমুর যোগাযোগ করলে তার পরিকল্পনা ফাঁস হয়।

নাইমুর উত্তর লন্ডনের বার্মিংহামে পরিবারের সঙ্গে বসবাস করতেন। তবে গত বছরের নভেম্বরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আরও পড়ুন : 

এ/ এমকে