• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

বিচারপতির প্রশ্ন, চাকরির সব টাকা দিয়েও কী এই বাড়ি কেনা যায়?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ৩১ আগস্ট ২০১৮, ২২:১৩ | আপডেট : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:৩১

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে ৫৪ লাখ দিরহাম মূল্যের (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১২ কোটি ২৮ লাখ ৬৩ হাজার টাকা) একটি বাড়ি আছে পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট জেনারেল পারভেজ মোশাররফের। 

এছাড়া ২০১৫ মডেলের মার্সিডিজ (মূল্য দুই লাখ ৩০ হাজার দিরহাম), ২০১৭ মডেলের তাহো জিপ (মূল্য দেড় লাখ দিরহাম) ও ২০১৮ মডেলের চেভরোলেত ইমপালা (মূল্য ১ লাখ ৩০ হাজার দিরহাম) গাড়ি আছে তার।

৯২ হাজার ১০০ দিরহাম, ২১ হাজার ৫৫০ পাউন্ড এবং দুই লাখ ৬৮ হাজার ৬৫৩ দিরহামের তিনটি বিদেশি ব্যাংক অ্যাকাউন্টও আছে অবসরপ্রাপ্ত এই সেনাপ্রধানের।

গত বুধবার (২৯ আগস্ট) দেশটির প্রধান বিচারপতি সাকিব নিসারের নেতৃত্বে তিন বিচারপতির বেঞ্চে একটি আবেদনের শুনানির সময় মোশাররফের পক্ষ থেকে জমা দেয়া সম্পদের হলফনামায় এসব তথ্য জানানো হয়। আবেদনটি করেন লইয়ারস ফাউন্ডেশন ফর জাস্টিসের প্রেসিডেন্ট অ্যাডভোকেট ফিরোজ শাহ গিলানি।

সাবেক এই রাষ্ট্রপতির সম্পদের বিবরণী সম্পর্কে সংশয় প্রকাশ করে প্রধান বিচারপতি জানতে চান, চাকরি জীবনের সব বেতন দিয়েও কী দুবাইয়ে ফ্ল্যাট কেনা সম্ভব?

জবাবে মোশাররফের আইনজীবী আখতার শাহ বলেন, প্রেসিডেন্টের পদ থেকে সরে যাওয়ার পর বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় অতিথি হিসেবে তিনি বক্তব্য দিয়েছেন। সেই আয় থেকে এই সম্পদ করা হয়েছে।

বক্তব্য দিয়ে এত অর্থ উপার্জন করা সম্ভব কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে প্রধান বিচারপতি মোশাররফকে আদালতে হাজির হয়ে নিজের সম্পদের বিবরণ দিতে বলেন।

এছাড়া ইসলামাবাদের শহরতলি চাক শাহজাদে ফার্ম হাউসের মালিক কে, তা জানতে চাইলে আখতার শাহ তা মোশাররফের বলে জানান। এসময় মোশাররফ ও তার স্ত্রীর নামে থাকা সব সম্পদের হিসাব তিন সপ্তাহের মধ্যে দাখিল করতে নির্দেশ দেয়া হয় বেঞ্চের পক্ষ থেকে।

পাকিস্তানের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম ডনে বুধবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।

কে/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়