ভারতে শিশুর পেট থেকে বের হলো ২০৩টি বরইয়ের বিচি ও নাটবল্টু

প্রকাশ | ২৬ আগস্ট ২০১৮, ২০:০১ | আপডেট: ২৬ আগস্ট ২০১৮, ২০:১১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

মাত্র চার বছরের শিশুর পেটে অস্ত্রোপচার করে বের করা হলো ২০৩টি বরইয়ের বিচি ও নাটবল্টু। এর পাশাপাশি মাটি ও কাপড়ের টুকরাও পাওয়া গেছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার ভারতের বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

মাত্র চার বছরের শিশুর পেট থেকে এতোকিছু বের হতে দেখে অবাক হয়ে গিয়েছেন অপারেশন টেবিলে থাকা হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের প্রধান নরেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় ও তার সহকর্মীরা। বিভাগীয় প্রধান বলেন, একটা শিশুর পেটে কোথায় থেকে ২০৩টি বরইয়ের বিচি এলো সেটা বুঝতে পারছি না। তবে কিছু বাচ্চার চুল ও কাপড় খাওয়ার প্রবণতা রয়েছে।

অপারেশন সফল হওয়ার পর ওই শিশুকে মনোবিদদের দিয়ে কাউন্সেলিং করার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। চার-পাঁচ দিনের মধ্যেই শিশুটি স্বাভাবিক হয়ে যাবে বলে চিকিৎসকরা জানান।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ভেনিজুয়েলায় এক মুরগি কিনতে লাগে দেড় কোটি টাকা
-------------------------------------------------------

হুগলির গোঘাট থানার শ্যামবাজারের বাসিন্দা অজয় রুইদাস ও কল্পনা রুইদাসের চার বছরের ছেলে জীবন রুইদাসের প্রায়ই পেটে ব্যথা হতো। ওই শিশুর পেটের ডানদিকে চাপ দিলে শক্ত জিনিস হাতে ঠেকত। এরপর আরামবাগে এক চিকিৎসকের কাছে ওই শিশুকে নিয়ে যান তার বাবা মা। যদিও গোড়ায় সমস্যা ধরা পড়েনি। এরপর জীবনকে নিয়ে তার বাবা মা বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। গেলো ১৪ আগস্ট চিকিৎসক ওই শিশুর অবস্থা দেখে তাকে ইনডোরে ভর্তি করান।

এরপর পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর শনিবার অপারেশন করা হয়। শনিবার ডাক্তার নরেন্দ্রনাথবাবুর নেতৃত্বে ১০-১২ জনের শল্যচিকিৎসকের একটি দল ঘণ্টাখানেক ধরে অপারেশনটি করে। অপারেশনের সময়ে একে একে বেরিয়ে আসে বরইয়ের এই বিচিগুলো।

সময়মতো ওই শিশুকে হাসপাতালে না আনলে খাদ্যনালী আটকে বিপদ ঘটে যেত বলে চিকিৎসকরা জানান।

চিকিৎসক নরেন্দ্রনাথবাবু বলেন, আমার মনে হয়েছে, শিশুটি মানসিক দিক থেকে স্বাভাবিক নয়। চার-পাঁচ দিনের মধ্যে শিশুটি স্বাভাবিক হয়ে যাবে। তারপর তাকে মনোবিদের কাছে নিয়ে কাউন্সেলিং করাতে হবে।

আরও পড়ুন : 

কেএইচ/জেএইচ