লিবিয়ায় গণঅভ্যুত্থানে হত্যার দায়ে ৪৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশ | ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১০:৪৯ | আপডেট: ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১১:২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

লিবিয়ায় ২০১১ সালে সংঘঠিত গণঅভ্যুত্থানের সময় রাজধানী ত্রিপোলিতে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকায় ৪৫ ব্যক্তিকে ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন দেশটির ক্রিমিনাল কোর্ট।

অভিযোগ আছে, লিবিয়ার সাবেক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে উৎখাতের সময় তারা ত্রিপোলিতে অন্তত কয়েক ডজন বিদ্রোহীকে হত্যা করেছিলেন।

এএফপির বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, গাদ্দাফি জামানার পর এই প্রথম এত বেশি মানুষকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে।

৭ বছর আগে অভ্যুত্থানের পর এখনও দেশটি পুনরায় শান্তি ফিরে পেতে সংগ্রাম করে যাচ্ছে।
-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : গাইবান্ধায় স্মার্ট কার্ড বিতরণে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ
-------------------------------------------------------

বিবিসির খবরে বলা হয়, ওই ঘটনায় ৪৫ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়ার পাশাপাশি আরও ৫৪ জনকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এছাড়া অপর ২২ জন মামলা থেকে খালাস পেয়েছেন।

তবে কখন তাদের গ্রেপ্তার ও বিচার কার্য শুরু হয় তা জানা যায়নি।

লিবিয়ার বিচার মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, লিবিয়ার সাবেক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফি ত্রিপোলি থেকে পালিয়ে যাওয়ার ও ক্ষমতাচ্যুত হবার কিছু সময় আগে তার অনুগত বাহিনীগুলোর দ্বারা সংঘটিত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে মামলাগুলোর সম্পর্ক আছে।

১৯৬৯ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত ৪২ বছর লিবিয়ার শাসনকর্তা ছিলেন মুয়াম্মার গাদ্দাফি। আরব বসন্তে আন্দোলিত হয়েছিলো লিবিয়াও, ব্যাপক জাগরণ, বিপ্লবের পর সির্তে শহরে এক হামলায় ২০১১ সালের ২০ অক্টোবর মারা যান তিনি।

আরও পড়ুন : 

এপি/এসআর