• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

২০১৯ সালে বিজেপি সরকারকে হটিয়ে দেশ ‘স্বাধীন’ করবো: মমতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৫ আগস্ট ২০১৮, ১২:৫৪ | আপডেট : ১৫ আগস্ট ২০১৮, ১৩:১১
রাজ্য সচিবালয় নবান্নে সংবাদ সম্মেলনে মমতা ব্যানার্জি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেছেন, ২০১৯ সালে দেশ থেকে বিজেপি সরকারকে উৎখাত করে দেশকে স্বাধীন করবো। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতার বেহালায় এক অনুষ্ঠানে তিনি ওই মন্তব্য করেন। খবর পার্সটুডের।

তিনি বলেন, ২০১৯ সালে এই সরকারকে উৎখাত করে দেশকে স্বাধীন করবো। দেশের মানুষকে স্বাধীন করবো। এটাই আমাদের শপথ। মানুষ মর্যাদা ফিরে পাবে। দেশে স্বৈরাচারী সরকার ক্ষমতায় থাকায় ‘সুপার ইমারজেন্সি’ চলছে বলেও মন্তব্য করেন মমতা। তিনি বলেন, আমি মরতে রাজি আছি, কিন্তু বিজেপি’র কাছে আত্মসমর্পণ করতে রাজি নই। 

একইদিনে রাজ্য সচিবালয় নবান্নে এক সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ও বিজেপির বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনায় সোচ্চার হন মমতা।

তিনি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বলেন, বিজেপির নেতারা এতো বড় বড় কথা বলছেন! তাদের বাবা-মায়ের জন্ম প্রমাণপত্র আছে? অমিত শাহের বাবা-মায়ের জন্ম প্রমাণপত্র আছে তো?

-------------------------------------
আরও পড়ুন : যেভাবে ভেঙে পড়ে ইতালির মহাসড়ক সেতুটি
--------------------------------------

আসামে এনআরসি থেকে ৪০ লাখ মানুষের নাম বাদ যাওয়া প্রসঙ্গে মমতা বলেন, আসামের ৪০ লাখ মানুষের মধ্যে ২৫ লাখ হিন্দু বাঙালি, ১৩ লাখ মুসলিম বাঙালি ও দুই লাখ বিহারি, নেপাল ও অন্যান্যরা রয়েছেন। ষড়যন্ত্র করে এদের নাম বাদ দেয়া হয়েছে।

তার অভিযোগ, বিজেপি মানুষের মধ্যে বিভাজনের খেলায় মেতেছে। জোর করে মানুষকে ভয় দেখাচ্ছে। যারা প্রতিবাদ করছে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হচ্ছে। এভাবে জোর করে ‘অনুপ্রবেশকারী’র আখ্যা দেয়া হচ্ছে।

মমতা আরও বলেন, আসামে যেসব মানুষের নাম বাদ দেয়া হয়েছে তারা ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চের আগেই এসেছেন এবং বিজেপি রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করার লক্ষ্যে সেখানে গোলযোগ সৃষ্টি করছে।

আরও পড়ুন :

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়