• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

যুক্তরাষ্ট্রের ইলেক্ট্রনিক পণ্য বর্জনের ঘোষণা দিলেন এরদোয়ান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৪ আগস্ট ২০১৮, ২০:৪৬ | আপডেট : ১৪ আগস্ট ২০১৮, ২১:০৭

যুক্তরাষ্ট্রের ইলেক্ট্রনিক পণ্য বর্জনের ঘোষণা দিলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান।

মঙ্গলবার দেশটির ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির ১৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক সম্মেলনে তিনি এই ঘোষণা দেন বলে জানিয়েছে তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি।

এরদোয়ান বলেন, আমরা আমেরিকান ইলেকট্রনিক পণ্য বর্জন করবো। যুক্তরাষ্ট্রের মাল্টিন্যাশনাল টেকনোলজি কোম্পানি অ্যাপল এবং তার প্রতিদ্বন্দ্বী দক্ষিণ কোরিয়ান স্যামসাং গ্রুপের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, যদি তাদের আইফোন থাকে, তবে অন্যদের আছে স্যামসাং।

জনগণ এবং বিশেষ করে ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে তিনি বলেন,  তুরস্ক এর আগে উন্নত মানের পণ্য উৎপাদন করেছে। নিজেদের চাহিদা মিটিয়ে তা রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রাও অর্জন করেছে। এখন আমরা বেশি বেশি পণ্য উৎপাদন ও রপ্তানি করবো। আমরা আমাদের ভাণ্ডারে তালা লাগাবো না।
-----------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : ইতালিতে মোটরওয়ে ব্রিজ ধসে কমপক্ষে নিহত ১১
-----------------------------------------------------------------------

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, আজ পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো ব্যাংকিং ব্যবস্থাগুলোর একটি আমাদের।  এই অর্থনৈতিক আক্রমণ তুর্কি অর্থনীতিতে খুব বেশি প্রভাব ফেলতে পারবে না কিন্তু এর মধ্যে আরও কিছু পরিকল্পনা আছে তাদের।

তিনি বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে তারা অর্থনীতিকে একটা অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতে দ্বিধা করবে না। কারণ তারা ইতোমধ্যে কূটনৈতিক ও সামরিকভাবে আমাদের মধ্যে অস্থিতিশীলতার বীজ বপনের চেষ্টা করেছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের অর্থনীতিকে টিকিয়ে রাখতে আমরা এর আগে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছি এবং ভবিষ্যতেও নেবো। তবে আরেকটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো আমাদের রাজনৈতিক অবস্থা দৃঢ় রাখা।

উল্লেখ্য, তুরস্কে আটক যুক্তরাষ্ট্রের যাজক অ্যান্ড্রু ব্রুনসনকে নিয়ে কূটনৈতিক বিবাদের প্রেক্ষাপটে ট্রাম্প তুর্কি ইস্পাত ও অ্যালুমিনিয়ামের ওপর দ্বিগুণ শুল্ক আরোপ করার পর ডলারের বিপরীতে লিরার মূল্যমান ক্রমাগত কমতে থাকে।

এশিয়ার বাজারে একপর্যায়ে লিরার দাম সাত দশমিক ২৪ এ নেমে যায়। তবে এখন তা কিছুটা স্থিতিশীল হয়েছে। তুরস্কের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ইতোমধ্যে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর ব্যবসা সহজতর করতে সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে কিন্তু সুদের হার বাড়ায়নি।

ব্রুনসনকে আটকে রাখার জবাবে তুরস্কের বিচারমন্ত্রী আবদুলহামিত গুল এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সোয়লুর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কিছুদিনের মধ্যেই শুল্ক বৃদ্ধির ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

২০১৬ সাল থেকে ব্রুনসনকে আটকে রেখেছে তুরস্ক। দেশটির মতে, এই যাজক কুর্দি বিদ্রোহী দলকে সমর্থন করেন।

আরও পড়ুন :

কে/ এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়