বোরকা নিয়ে জনসনের কটূক্তির পক্ষে মিস্টার বিন

প্রকাশ | ১১ আগস্ট ২০১৮, ২০:০১ | আপডেট: ১২ আগস্ট ২০১৮, ০৯:২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বোরকা নিয়ে কটূক্তি করায় যুক্তরাজ্যের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন প্রচণ্ড সমালোচিত হচ্ছেন। তাকে ক্ষমা চাওয়ার পাশাপাশি কনজারভেটিভ পার্টি থেকে বহিষ্কারের দাবিও উঠেছে। তবে এমন সময় তার কটূক্তির পক্ষে মন্তব্য করলেন বিশ্বব্যাপী মিস্টার বিন নামে পরিচিত দেশটির কৌতুক অভিনেতা রাওয়ান অ্যাটকিনসন।

যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম ‘দ্য টাইমস’কে লেখা এক চিঠিতে তিনি বলেন, সারাজীবন ধর্ম নিয়ে কৌতুক তৈরি করার স্বাধীনতা ভোগকারী হিসেবে আমি মনে করি না যে যুক্তরাজ্যের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের বোরকা পরিহিতাদেরকে লেটার বক্সের সঙ্গে তুলনা করা ভালো কিছু।

মিস্টার বিন বলেন, এটি একটি চমৎকার দৃশ্যমান উপমা ও কৌতুক। জনসন ক্ষমা চান আর না চান, এক সময় এটা জনসচেতনতার প্রশ্নে উঠে আসবে। ধর্ম সংক্রান্ত সব জোকসই আইন লঙ্ঘন। তাই এগুলোর জন্য ক্ষমা চাওয়া অর্থহীন।

একমাত্র খারাপ কৌতুকের জন্যই ক্ষমা চাওয়া উচিত। এর ভিত্তিতে ক্ষমা চাওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৬ আগস্ট ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফে প্রকাশিত এক নিবন্ধে বরিস জনসন লিখেছিলেন, নিকাবকে নিষিদ্ধ করা উচিত হবে না কিন্তু এটা দেখতে ‘হাস্যকর’ লাগে। আর মুসলিম নারীরা বোরকা পরলে তাদের ‘চিঠির বাক্স’ ও ‘ব্যাংক ডাকাত’দের মতো দেখায়।

এর প্রতিক্রিয়ায় কনজারভেটিভ মুসলিম ফোরামের প্রতিষ্ঠাতারা বলেন, জনসনের এই মন্তব্য কমিউনিটির মধ্যকার সম্পর্ককে হুমকির মুখে ফেলবে।

তার মন্তব্য প্রসঙ্গে বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যালিস্টার বার্ট বলেন, আমি মনে করি তার মন্তব্যে অপরাধের একটা মাত্রা আছে। তবে সরকার পোশাকের বিষয়ে কোনও বিধিনিষেধ আরোপ করবে না।

বার্টের এই বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করে কনজারভেটিভ পার্টির চেয়ারম্যান ব্রানডন লুইস তার টুইটারে লিখেছেন, আমি বরিস জনসনকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। কিন্তু ক্ষমা চাইতে অস্বীকৃতি জানান জনসন।

গত বৃহস্পতিবার (৯ আগস্ট) জনসনকে কনজারভেটিভ পার্টি থেকে বহিষ্কার করার দাবি জানিয়ে দলটির সভাপতি ব্র্যানডন লুইসের কাছে চিঠি লেখেন নেকাব বা বোরকা পরা ১০০ নারী।

কে/পি