• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

বোরকা মন্তব্যে ‘ক্ষমা চাইবেন না’ বরিস জনসন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৮ আগস্ট ২০১৮, ০৯:৫৬ | আপডেট : ০৮ আগস্ট ২০১৮, ১০:০৪
ফাইল ছবি

সাবেক ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, বোরকা নিয়ে করা মন্তব্যের জন্য তিনি ক্ষমা চাইবেন না। তার দল কনজারভেটিভ পার্টি চেয়ারম্যান জনসনকে এ নিয়ে ক্ষমা চাইতে বলার পর এমন মন্তব্য করলেন ব্রিটিশ এই রাজনীতিক। খবর বিবিসির।

মুসলিম নারীরা বোরকা পরলে তাদের ‘চিঠির বাক্সের মতো’দেখায় এবং ‘ব্যাংক ডাকাতদের’সঙ্গে তুলনা করার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন গেলো মাসে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করা জনসন।

জনসনের ক্ষমা চাওয়ার যে দাবি উঠেছে, তা সমর্থন জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে-ও। তিনি বলেন, তার মন্তব্য ‘সুস্পষ্ট অবমাননা’। কিন্তু জনসনের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে, তিনি ক্ষমা চাইবেন না। ওই সূত্রটি আরও জানিয়েছে, তার দৃষ্টিভঙ্গির জন্য সমালোচনাকে ‘হাস্যকর’ উল্লেখ করেছেন জনসন।

সূত্রটি বলছে, কঠিন ইস্যুতে বিতর্ক বন্ধ করে দেয়ার ফাঁদে আমাদের পা দেয়া ঠিক হবে না। আমাদের এ নিয়ে কথা বলতে হবে। যদি আমরা আমাদের উদার মূল্যবোধ নিয়ে কথা বলতে ব্যর্থ হই, তাহলে সেটা প্রতিক্রিয়াশীল ও চরমপন্থীদের চাষাবাদের ক্ষেত্র হবে।

সোমবার ব্রিটিশ পত্রিকা দ্য টেলিগ্রাফে এক নিবন্ধে মুসলিম নারীদের বোরকা নিয়ে ওই মন্তব্যের পর বিভিন্ন মুসলিম গ্রুপ, কয়েকজন টোরি এমপি এবং বিরোধী দলগুলোর সমালোচনার মুখে পড়েছেন লন্ডনের সাবেক মেয়র জনসন।

ওই নিবন্ধে তিনি লিখেন, নিকাবকে নিষিদ্ধ করা উচিত হবে না কিন্তু এটা দেখতে ‘হাস্যকর’লাগে। তবে কনজারভেটিভ মুসলিম ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা বলছেন, জনসনের এই মন্তব্য কমিউনিটির মধ্যকার সম্পর্ককে হুমকির মুখে ফেলবে।

এদিকে জনসনের মন্তব্য প্রসঙ্গে বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যালিস্টার বার্ট বলেন, আমি মনে করি তার মন্তব্যে অপরাধের একটা মাত্রা আছে। তবে সরকার পোশাকের বিষয়ে কোনও বিধিনিষেধ আরোপ করবে না। বার্টের এই বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করে কনজারভেটিভ পার্টির চেয়ারম্যান ব্রান্ডন লুইস তার টুইটারে লিখেছেন, আমি বরিস জনসনকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন : 

এ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়