• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

ট্রাম্পের আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান ইরানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ০১ আগস্ট ২০১৮, ১৫:৫৪ | আপডেট : ০১ আগস্ট ২০১৮, ১৬:৩৩
ইরানের সিনিয়র কর্মকর্তারা এবং সেনা কমান্ডার মঙ্গলবার ট্রাম্পের পূর্বশর্ত ছাড়া আলোচনার প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছেন। তারা এটিকে অর্থহীন ও ‘অলীক’ বলে বর্ণনা করে বলেন, ট্রাম্পের এই প্রস্তাব তেহরানের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপের ব্যাপারে ওয়াশিংটনের পদক্ষেপের বিরোধী। খবর রয়টার্সের।

ভিন্নভাবে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বেরিয়ে যাওয়া ‘অবৈধ’ ছিল। একইসঙ্গে ইরানের তেল রপ্তানি ব্যাহত করার ওয়াশিংটনের প্রচেষ্টার কাছে হার মানবে না তেহরান।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেছেন, পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর আলোচনার যে সমাপ্তি ঘটেছে তার জন্য ওয়াশিংটনই দায়ী। তিনি এক টুইট বার্তায় লিখেন, আলোচনা টেবিল থেকে উঠে যাওয়ার দায় যুক্তরাষ্ট্রের। হুমকি, অবরোধ এবং জনসংযোগ কোনও কাজে আসবে না।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাশেমি বলেন, ইরানের ওপর অবরোধ করে এবং দেশটির সঙ্গে ব্যবসা না করতে অন্যান্য দেশের ওপর চাপ প্রয়োগ করে ট্রাম্পের আলোচনার প্রস্তাব তার সিদ্ধান্ত বিরোধী।

বাহরাম কাশেমিকে উদ্ধৃতি করে ইরানের বেসরকারি সংবাদ সংস্থা ফার্স নিউজ জানিয়েছে, অবরোধ ও চাপ প্রয়োগ আলোচনায় বসার প্রস্তাবের পুরোপুরি বিপরীত।

এদিকে ইরানের শক্তিশালী বিপ্লবী গার্ডের প্রধান কমান্ডার মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আলি জাফারি বলেন, ইসলামিক রিপাবলিক উত্তর কোরিয়া নয়। তিনি বলেন, মি. ট্রাম্প! ইরান উত্তর কোরিয়া নয় যে, আপনার প্রস্তাব মেনে নেবে।

তিনি আরও বলেন, এমনকি আপনার পরবর্তী কোনও প্রেসিডেন্টও এমন কোনও দিন দেখতে পাবেন না।

---------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : আসামে এনআরসি থেকে বাদ সাবেক রাষ্ট্রপতির পরিবার!
---------------------------------------------------------------

বৈদেশিক সম্পর্ক বিষয়ক ইরানের কৌশলগত কাউন্সিলের প্রধান কামাল খাররাজি বলেছেন, ট্রাম্পের প্রস্তাবের কোনও মূল্য নেই। কারণ এক সপ্তাহ আগে ট্রাম্প সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, ওয়াশিংটনের বিরুদ্ধে হুমকি হয়ে দাঁড়ালে তেহরানকে কঠোর ফল ভোগ করতে হবে।

এ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়