জিম্বাবুয়ের নির্বাচনে সাবেক মিত্রকে ভোট দেবেন না মুগাবে

প্রকাশ | ৩০ জুলাই ২০১৮, ০৯:০০ | আপডেট: ৩০ জুলাই ২০১৮, ০৯:২৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ফাইল ছবি

জিম্বাবুয়ে আজ সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে নির্বাচনের আগে নাটকীয় এক ঘোষণায় জিম্বাবুয়ের সাবেক প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে বলেছেন, তিনি তার উত্তরসূরি ও সাবেক মিত্র এমারসন এমনানগাগওয়াকে ভোট দেবেন না। খবর বিবিসির।

মুগাবে বলেন, তিনি জানু-পিএফ পার্টির প্রার্থী এমারসন এমনানগাগওয়াকে সমর্থন করতে পারেন না কারণ তার ‘নিজের গড়া দল’ থেকেই তাকে জোরপূর্বক বের করে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, যারা আমাকে নির্যাতন করেছে আমি তাদের ভোট দিতে পারি না। তবে মুগাবে বলেন যে, তিনি বিরোধী নেতা নেলসন চামিসাকে ভোট দেবেন।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : ১৪ আগস্টের আগে শপথ নিতে চান ইমরান খান
--------------------------------------------------------

চার দশক জিম্বাবুয়ের শাসন ক্ষমতায় থাকার পর গেল বছর এক সেনা অভ্যুত্থানে রবার্ট মুগাবে উৎখাত করা হয়। পরে মুগাবের দল জানু-পিএফও তার দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়।

নির্বাচনে এমনানগাগওয়ার মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা বিরোধী প্রার্থী মুভমেন্ট ফর ডেমোক্রেটিক চেঞ্জ (এমডিসি)-এর নেতা নেলসন চামিসার সঙ্গে হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মুগাবের কাছে চামিসার জয়ের ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, নির্বাচনে চামিসাই একমাত্র যোগ্য প্রার্থী।

এদিকে এমনানগাগওয়া অভিযোগ করেছেন যে, ৯৪ বছর বয়সী মুগাবে বিরোধীদের সঙ্গে গোপনে সখ্যতা করছেন। তিনি বলেন, এটা সবার কাছে স্পষ্ট যে মুগাবের সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছে চামিসা। তাই জিম্বাবুয়ের রূপান্তর ও জাতি পুনর্গঠনে চামিসার অভিলাষকে আমরা আর বিশ্বাস করতে পারি না।

জিম্বাবুয়ের রাজধানী হারারেতে নিজের বাসায় বসে দেয়া সাক্ষাৎকারে সাবেক প্রেসিডেন্ট মুগাবে আরও বলেন, তাকে একটি সেনা অভ্যুত্থানে ‘উৎখাত’ করা হয়েছে এবং ‘সংঘাত এড়াতেই’ তিনি ক্ষমতা ছেড়েছেন।

তিনি বলেন, নির্বাচনে সেনাসমর্থিত সরকারকে মানুষজন ছুঁড়ে ফেলবে এবং সাংবিধানিক সরকারকে ফিরিয়ে আনবে। এদিকে মুগাবে তার স্ত্রী গ্রেস মুগাবের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে চেয়েছেন এমন অভিযোগকে তিনি ‘ডাহা মিথ্যা’ বলে অভিহিত করেছেন। তবে মুগাবে ইঙ্গিত দেন বরং সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী সিডনি সেকেরামাইয়ির কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের পরিকল্পনা ছিল তার।