• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

লাদেনের সাবেক দেহরক্ষীকে জার্মানিতে ফেরত আনতে আদালতের নির্দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৪ জুলাই ২০১৮, ১৪:৩১ | আপডেট : ১৪ জুলাই ২০১৮, ১৪:৩৯
ফাইল ছবি

আল-কায়েদার সাবেক প্রধান ওসামা বিন লাদেনের তিউনিসীয় বংশোদ্ভূত দেহরক্ষী সামি এ কে তিউনিসিয়ার কাছে হস্তান্তর করেছে জার্মান সরকার। তিউনিসিয়ার বিচার বিভাগের আহ্বানে সাড়া দিয়ে শুক্রবার এই হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। এরই কয়েক ঘণ্টা পর জার্মানি আদালত তাকে ফিরিয়ে আনতে দেশটির সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন । খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।

আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও সামি এ কে একটি চার্টার বিমানে করে তিউনিসিয়ার কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেয় জার্মান সরকার। দেশে ফিরলে নির্যাতনের শিকার হবেন না এমন নিশ্চয়তা না পাওয়া পর্যন্ত সামি এ কে তিউনিসিয়া পাঠানো থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেন জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর গেলসেনকার্চেনের প্রশাসনিক আদালত। কিন্তু কর্তৃপক্ষ আদালতের নির্দেশনা সম্বলিত ফ্যাক্সটি যখন হাতে পায় ততক্ষণে সামি এ তিউনিসিয়ায় অবতরণ করে ফেলেছেন।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : ভালো মুসলিম হওয়ার আগে ভালো মানুষ হতে হয়: জাকির নায়েক
--------------------------------------------------------

পরে গেলসেনকার্চেনের প্রশাসনিক আদালত, সামি এ কে ফিরিয়ে আনতে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়। এসময় আদালত বলেন, কর্তৃপক্ষ ‘অবৈধ ও আইনের মৌলিক নীতিমালা ভঙ্গ করেছেন’।

জার্মানির বোচুম শহরে স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে বেশ কয়েক বছর বসবাস করেন সামি এ। আল-কায়েদা প্রধান বিন লাদেনের সাবেক এই দেহরক্ষীকে বিপজ্জনক উল্লেখ করে গেল জুন তাকে জিম্মায় নেয় জার্মান কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, সামি এ ১৯৯৭ সালে তিউনিসিয়া থেকে জার্মানিতে পাড়ি জমান এবং দেশটিতে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। তবে ১৯৯৯ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত সময়ে তিনি জার্মানিতে ছিলেন না। এ সময়ে তিনি আফগানিস্তানে গিয়ে আল-কায়েদার কাছ থেকে সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে বিন লাদেনের দেহরক্ষীর দায়িত্ব পালন করেন।

আরও পড়ুন  : 

এ/ এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়