• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

দাবদাহ ঠেকাতে ছাগল ভাড়া করলো পর্তুগিজ সরকার!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৬ জুন ২০১৮, ১৬:২৬ | আপডেট : ১৬ জুন ২০১৮, ১৬:৩১
দাবদাহ ঠেকাতে ছাগল ভাড়া করলো পর্তুগিজ সরকার। দেশটিতে বয়ে যাওয়া নিয়মিত দাবদাহ ঠেকাতে অদ্ভুত কিন্তু কার্যকর এ উপায় অবলম্বন করলো সরকার। খবর স্কাই নিউজের।  

পর্তুগালে দাবদাহ একটি দৈনন্দিন বিপত্তি। গ্রীষ্মকালে প্রায়ই দাবদাহ হয়। গেল বছর দাবদাহে ১০৬ জন বেসামরিক লোক মৃত্যুবরণ করেছে।

দাবদাহ ছড়িয়ে পড়ার অন্যতম একটি কারণ সেখানকার ঘন ঘাস। আর এই কারণটির জন্য দেশটির সরকার এক ডজনের অধিক ছাগলের পালকে ভাড়া করলো। এই ছাগলের পালগুলো ঘন ঘন ঘাস খেয়ে দাবদাহ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাবে- এই প্রত্যাশা থেকে এই অভিনব উদ্যোগ।

পশু দিয়ে দাবদাহ ঠেকানোর এই প্রক্রিয়াটি নতুন নয় বলে জানা গেল স্কাই নিউজের প্রতিবেদনে। যুগ যুগ ধরে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া এবং প্যাসিফিক নর্থওয়েস্টেও দাবদাহ ঠেকানোর জন্য এগুলো ব্যবহৃত হয়ে থাকে। তবে পর্তুগালে এই পন্থা অবলম্বন এই প্রথম। এটা দিয়ে দাবদাহ ঠেকানোর প্রক্রিয়াটি বেশ কার্যকর বলে জানা যায়।

পর্তুগালের বন ও গ্রাম উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের অধস্তন মন্ত্রী মিগুয়েল জুয়াও দ্য ফ্রেইতাস বলেন, গত বছর যখন এতোগুলো মানুষের মৃত্যু ঘটে গেলো, তখনই আমরা বুঝে গিয়েছিলাম ভিন্ন কিছু একটা করতে হবে। প্রতিরোধ হচ্ছে সবার আগে জরুরি।

শুধু ছাগল ভাড়া নয়, দাবদাহ প্রতিরোধে পর্তুগালের অগ্নি নিরোধক দ্রব্যাদির উন্নয়ন ঘটানো হয়েছে। দেশটির অগ্নি নির্বাপক বাহিনীর কাছে এখন ১২ টি পানি ছুড়ে মারার সুবিধাযুক্ত বিমান এবং ৪১ টি হেলিকপ্টার আছে।

পর্তুগালে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দাবদাহ খুব ঘন ঘন দেখা যায়। গত বছরেও অনেকগুলো ভয়াবহ দাবদাহ দেখা গিয়েছিল। তাই এ বছর দাবদাহ ঠেকাতে গেলো বছরের চেয়ে ১০ হাজার সাতশ’ দমকলকর্মী বেশি নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

পর্তুগালের সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকায় তাপমাত্রা গত বছরে স্মরণকালের সবচেয়ে বেশি ছিল। সেইসঙ্গে মানবসৃষ্ট দূষণ ও বৈশ্বিক তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণে দাবদাহের পরিমাণ দিন দিন বাড়ছেই দেশটিতে।

কেএইচ/ জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়