• ঢাকা সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

ইউরোপের সেই গর্ভবতী গাভীর মৃত্যুদণ্ড বাতিল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৫ জুন ২০১৮, ১২:৫৪ | আপডেট : ১৫ জুন ২০১৮, ১২:৫৬
সীমান্ত পার হওয়ার কারণে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) আইন অমান্য হয়েছে এমন অভিযোগে গর্ভবতী গাভী পেনকাকে দেয়া মৃত্যুদণ্ড বাতিল করা হয়েছে। সম্প্রতি ইউরোপীয় ইউনিয়নের সীমান্ত পার হওয়ায় গর্ভবতী গাভীটিকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়। খবর ইন্ডিপেনডেন্ট, রয়টার্সের।

পরে বুলগেরিয়ার কর্মকর্তারা ইউরোপীয় ইউনিয়নের আইন অনুযায়ী, গাভীটির মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের দাবি করেছিলেন। কিন্তু বুলগেরিয়ার এমন সিদ্ধান্তে প্রাণি অধিকার কর্মীরা প্রতিবাদ শুরু করে।

এদিকে পাঁচ বছর বয়সী পেনকাকে রক্ষার জন্য গণসমর্থনের আয়োজন করে একটি অনলাইন পিটিশন দায়ের করে বিটলের স্যার পল ম্যাককার্টনিসহ প্রাণি অধিকার কর্মীরা। পরে গাভীর মালিক ইভান হারালামপিয়েভের সঙ্গে যোগাযোগ করে সার্বিয়া থেকে পেনকাকে ফেরত পাঠানো হয়।

বুলগেরিয়ার ফুড সেফটি অ্যাজেন্সি পরে পেনকার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে। সোমবার তারা জানায়, ল্যাব টেস্টে দেখা গেছে তার স্বাস্থ্য ভালো আছে।

কিছুদিন আগে গাভীটি বুলগেরিয়ার সীমান্তবর্তী গ্রাম কপিলোভস্তিতে পাল থেকে বের হয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) অসদস্য দেশ সার্বিয়ায় ঢুকে পড়ে। আর কয়েক সপ্তাহ পর বাচ্চা প্রসব করার কথা পেনকার।

উল্লেখ্য, ইউরোপীয় কমিশনের গাইডলাইনে বলা হয়, ইউরোপীয় কমিশনভুক্ত দেশে গরু বা জন্তু-জানোয়ার নিয়ে ঢোকার সময় ইইউ অনুমোদিত সীমান্ত পর্যবেক্ষণ ফাঁড়িতে কাগজপত্র দেখাতে হবে। গরুর সুস্থতার প্রমাণও দেখাতে হয়।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়