• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

কেইম্যান দ্বীপের গভর্নর পদ থেকে আনোয়ার চৌধুরীকে অপসারণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৫ জুন ২০১৮, ১১:০৬ | আপডেট : ১৫ জুন ২০১৮, ১১:১৩
ফাইল ছবি
প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ব্রিটেনের কেইম্যান দ্বীপে নিযুক্ত গভর্নর আনোয়ার চৌধুরীকে তার পদ থেকে সাময়িকভাবে প্রত্যাহার করা হয়েছে। কেইম্যান দ্বীপের প্রথম মুসলিম গভর্নর আনোয়ার চৌধুরীর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগের তদন্ত করছে কর্তৃপক্ষ। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

গেলো বুধবার ব্রিটেনের ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিস (এফসিও)  এক বিবৃতিতে গভর্নরের পদ থেকে আনোয়ার চৌধুরীকে সাময়িক প্রত্যাহারের তথ্য জানিয়েছে। তারা বলছে, তবে ঠিক কী কারণে চৌধুরীকে সাময়িক প্রত্যাহার করা হয়েছে বা তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে সেগুলো আলোচনার অপ্রয়োজনীয়।

কেইম্যান দ্বীপের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী অ্যালডেন ম্যাকলগলিন বলেছেন, আনোয়ার চৌধুরীর বিরুদ্ধে ঠিক কী অভিযোগ আনা হয়েছে সে ব্যাপারে মন্তব্য করতে তিনি অপারগ। তবে তার প্রত্যাহার আদেশ ‘অভাবিত এবং দুর্ভাগ্যজনক’।

বৈদেশিক অঞ্চল বিষয়ক মন্ত্রী লর্ড আহমাদের সভাপতিত্বে একটি বৈঠকে যোগ দিতে এখন লন্ডন আছেন ম্যাকলগলিন। ওই বৈঠকে ব্রিটেনের বৈদেশিক অঞ্চলের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের সাংবিধানিক সম্পর্ক নিয়ে নিশ্চিতভাবেই আলোচনা করা হবে।

গেলো মার্চেই কেইম্যান দ্বীপের গভর্নর হিসেবে নিয়োগ পাওয়া আনোয়ার চৌধুরীর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আছে সেগুলো ওই দ্বীপের নাকি অন্য কোনও ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সে বিষয়ে কোনও তথ্য দেয়নি এফসিও।

আগামী চার থেকে ছয় সপ্তাহের মধ্যে আনোয়ার চৌধুরীর বিষয়ে ওঠা অভিযোগের তদন্ত শুরু হবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৬ মার্চ প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ব্রিটেনের কেইম্যান দ্বীপের গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন আনোয়ার চৌধুরী। এর আগে ২০০৪ সালে প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্যক্তি হিসেবে ব্রিটিশ হাইকমিশনার হিসেবে বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। চার বছর বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন করার পর একজন সিনিয়র পলিসি ডিরেক্টর হিসেবে ২০০৮ সালে এফসিও-তে যোগ দেন আনোয়ার চৌধুরী।

আরও পড়ুনঃ  

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়