• ঢাকা সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

অস্বাভাবিকভাবে পাকিস্তানে বাড়ছে অমুসলিম ভোটার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ২৯ মে ২০১৮, ১৩:০৫ | আপডেট : ২৯ মে ২০১৮, ১৩:২০
অস্বাভাবিকভাবে পাকিস্তানে বাড়ছে অমুসলিম ভোটার। দেশটির আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে একটি নতুন সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমন তথ্য। সমীক্ষানুযায়ী, পাঁচ বছরে ৩০ শতাংশ অমুসলিম ভোটার বৃদ্ধি পেয়েছে দেশটিতে। খবর ডন।

ওই সমীক্ষায় উঠে এসেছে, অস্বাভাবিকভাবে মুসলিম ভোটার বেড়েছে পাকিস্তানে। বর্তমানে পাকিস্তানে মোট অমুসলিম ভোটারের সংখ্যা ৩.৬৩ মিলিয়ন। ২০১৩ সালের নির্বাচনের আগে অমুসলিম ভোটার ছিল ২.৭৭ মিলিয়ন। পাঁচ বছরে ৩০ ভাগ অমুসলিম ভোটার বৃদ্ধি পেয়েছে।

পাকিস্তানে মুসলিম ছাড়াও হিন্দু, খ্রিস্টান, আহমদি, বাহাই, শিখ, বৌদ্ধ এবং পারসি ধর্মের লোকেরা রয়েছে। এদের মধ্যে হিন্দুদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। পাকিস্তানের মোট অমুসলিমদের মধ্যে হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষদের সংখ্যা অর্ধেকেরও বেশি। গত পাঁচ বছরে সেই সংখ্যা অনেকটাই বেড়েছে। মূলত পাঞ্জাব ও সিন্ধু প্রদেশে হিন্দু জনসংখ্যা বেশি।

হিন্দুর পরেই পাকিস্তানে সংখ্যালঘু তালিকায় রয়েছে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা। ২০১৩ সালের হিসেব অনুসারে পাকিস্তানে মোট ১.৬৪ মিলিয়ন খ্রিস্টানের বাস। যাদের মধ্যে পাঞ্জাবেই থাকে এক মিলিয়ন খ্রিস্টান। বাকিরা সিন্ধু প্রদেশের বাসিন্দা।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : কানাডায় ব্যাংক থেকে ৯০ হাজার গ্রাহকের তথ্য চুরি!
--------------------------------------------------------

সংখ্যালঘু তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে আহমদি সম্প্রদায়। পাকিস্তানে অমুসলিম বলে পরিচিত হলেও এই সম্প্রদায় ইসলামেরই একটি অংশ। ২০১৩ সালে পাকিস্তানে এক লাখ ১৫ হাজার ৯৬৬ জন আহমদি ভোটার ছিল। পাঁচ বছরে সেই সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৬৭ হাজার ৫০৫। সিন্ধু ও ইসলামাবাদে এই সম্প্রদায়ের মানুষ বসবাস করেন।

সবশেষ পরিসংখ্যান অনুসারে পাকিস্তানে শিখ ভোটারের সংখ্যা আট হাজার ৮৫২ জন। খাইবার পাখতুনখোওয়া, সিন্ধু, পাঞ্জাব, বেলুচিস্তান এবং ইসলামাবাদের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে শিখ সম্প্রদায়ের মানুষ। ২০১৩ সালে পাকিস্তানে পাঁচ হাজার ৯৩৪ জন শিখ ভোটার ছিল।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৫ জুলাই পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন : 

এপি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়