• ঢাকা শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮, ৫ শ্রাবণ ১৪২৫

ইন্দোনেশিয়ায় পুলিশ স্টেশনে এবার তলোয়ার হামলা, নিহত ৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৬ মে ২০১৮, ১৭:৪৩ | আপডেট : ১৬ মে ২০১৮, ১৭:৫৯
ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রায় তলোয়ার নিয়ে পুলিশ স্টেশনে হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। হামলা চালাতে গিয়ে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন চার হামলাকারী। এসময় হামলাকারীদের হাতে নিহত হয়েছেন একজন পুলিশ কর্মকর্তা। আজ বুধবার এ ঘটনা ঘটে। খবর নিউ ইয়র্ক টাইমস, আল-জাজিরা, চ্যানেল নিউজ এশিয়া।

বুধবার দেশটির পুলিশ হেডকোয়ার্টারে গাড়ি নিয়ে ঢুকে তলোয়ার নিয়ে আক্রমণ চালায় ওই হামলাকারীরা। জঙ্গি সংগঠন আইএস এ হামলার দায় স্বীকার করেছে।

এর আগে বেশ কয়েকটি আত্মঘাতী হামলার ঘটনা ঘটে ইন্দোনেশিয়ায়। স্থানীয় আইএস কেন্দ্রিক দল জেম্মা আনসারুত দৌলাহকে (জেএডি) এই আক্রমণের জন্য দায়ী করেছে পুলিশ।

ইন্দোনেশিয়া বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মুসলিমপ্রধান দেশ। ২০০২ সালের বালিতে বোমা হামলার পরে দীর্ঘসময় সন্ত্রাসবিরোধী কঠোর ব্যবস্থার জন্য সবার কাছে প্রশংসিত হয়। তারা গ্রেপ্তার ও হত্যার মধ্যে সমন্বয় আনতে সক্ষম হয়। তারা মুক্ত হওয়া সন্ত্রাসীদের প্রতি তাদের মনোভাব পরিবর্তনেও বেশ সক্ষম হয়।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : নেপালে কার্গোবিমান বিধ্বস্ত, নিহত ২
--------------------------------------------------------

কিন্তু দেশটি এখন নতুন হুমকির মুখোমুখি, সিরিয়ায় যুদ্ধ শেষে ফেরা আইএস যোদ্ধাদের নিয়ে।

গত চারদিন ধরেই সহিংসতার মধ্যে আছে ইন্দোনেশিয়া। গত রোববার এক দম্পতি ও তাদের চার সন্তান নিয়ে তিনটি চার্চে আত্মঘাতী হামলা চালায়। তাতে ১৮ জন মারা যায়, আহত হয় ৪০ জন।

পশ্চিম জাভার সিয়ানজুরের রোববার চারজন সন্দেহভাজন (জেএডি) সদস্যকে হত্যা করে পুলিশ, আটক করে দুজনকে।

সোমবার পাঁচ সদস্যের একটি পরিবার পুলিশ স্টেশনে আক্রমণ চালায়। প্রতি আক্রমণে চারজন নিহত হয়, তবে আট বছর বয়সী একটি মেয়ে বেঁচে যায়।

উল্লেখ্য, ২০০২ সালের পরে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানে বেশ প্রশংসিতই ছিলো ইন্দোনেশিয়া। সেটা তারা ধরেও রেখেছিল বেশ কয়েকবছর। কিন্তু সম্প্রতি আবার রক্তাক্ত হয়ে উঠছে ইন্দোনেশিয়া।

আরও পড়ুন :

এপি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়