যুক্তরাষ্ট্র চুরি হয়ে গেছে: ট্রাম্প

প্রকাশ | ০৩ এপ্রিল ২০১৮, ১৮:০৮ | আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০১৮, ১৮:১৭

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক

আবারও ক্ষেপেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মেক্সিকো পেরিয়ে অভিবাসন প্রত্যাশীদের বহনকারী একটি গাড়ি যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টা করছে এমন খবরেই তেলে বেগুনে জ্বলে উঠেছেন ট্রাম্প।

এরপর একটার পর একটা টুইট করতে থাকেন ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, অবৈধ অভিবাসীদের স্রোতে যুক্তরাষ্ট্র চুরি হয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের আজকের অবস্থার জন্য ডেমোক্রেটরা দায়ী উল্লেখ করেও টুইট করেন তিনি।

তিনি লিখেন, ডেমোক্রেটরা এ বিষয়ে কোনো মাথা ঘামায়নি তাই ‘ডাকা’ এখন মৃত। কিন্তু এখন সবাই ‘ডাকা’র গাড়িতে চড়ার চেষ্টা করছে, যেটি এখন অকার্যকর। যথাযথ সীমান্ত আইনের মাধ্যমে আমাদের সীমান্ত সুরক্ষিত করতে দেয়াল দিতে হবে। ডেমোক্রেটরা কোনো সীমানা চায় না। তাই মাদক ও অপরাধ বাড়ছে।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: বলিভিয়ায় ৬.৮ মাত্রার ভূমিকম্প
--------------------------------------------------------

আরেক টুইটে ট্রাম্প লিখেছেন, এই বড় ‘ক্যারাভানকে’ তাদের দেশে ঢুকতে না দিতে মেক্সিকোর পুরো ক্ষমতা রয়েছে। অভিবাসন প্রত্যাশীদের মেক্সিকোর উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তে আটকে দেয়ার ক্ষমতা রাখে দেশটি। মেক্সিকোর উচিত ওইসব অভিবাসন প্রত্যাশীদের তাদের সীমান্ত পার হতে না দেয়া। কেননা তাদের সীমান্ত আইন কার্যকরী। আর আমাদের সীমান্ত আইন কোনো কাজের না।

মধ্য আমেরিকার বিভিন্ন দেশ থেকে পায়ে হেঁটে প্রায় ১২০০ অভিবাসীর একটি দল যুক্তরাষ্ট্রে ঢোকার চেষ্টা করছে। সব ধরনের বৈষম্য দূরীকরণের লক্ষ্যে অভিনব এ উদ্যোগ নিয়েছেন তারা। ২৫ মার্চ ‘পাম সানডে দিবস’ থেকে তারা এ যাত্রা শুরু করেন।

নারী, শিশু ও পুরুষের সমন্বয়ে ওই দলটির অধিকাংশই হন্ডুরাস (৮০ শতাংশ) থেকে এসেছে। পিপলস উইদাউট বর্ডারস (সীমান্তবিহীন জনগণ) নামের একটি সংস্থার আয়োজনে এ পদযাত্রায় অংশ নিয়েছেন তারা।

সিএনএন বলছে, এটা কিছুটা অধিকারকর্মীদের মতো পদযাত্রা, আবার কিছুটা মানবাধিকার মিশনের মতো। এ ধরনের পদযাত্রা একটা ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে। প্রতি বছরই এটা ঘটে।

তবে অভিবাসীদের এ দলটি এ যাবতকালের সবচেয়ে বড় দল, তাই তারা সবার মনোযোগ আকর্ষণ করেছে। তারা বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় নেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

আরও পড়ুন:

এ/পি