• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

নিজ ভূমিতে বসবাসের অধিকার আছে ইসরায়েলিদের: সৌদি যুবরাজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ০৩ এপ্রিল ২০১৮, ১৫:৩৪ | আপডেট : ০৩ এপ্রিল ২০১৮, ১৫:৪২
নিজেদের ভূমিতে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাসের অধিকার আছে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের জনগণের । মার্কিন ম্যাগাজিন আটলান্টিকে সোমবার প্রকাশিত একটি সাক্ষাৎকারে এমনটা বললেন সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। যদিও সৌদি আরব ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েলকে সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকার করে না। খবর বিবিসি, রয়টার্স।

ক্রাউন প্রিন্স বলেন, ইসরায়েলি এবং ফিলিস্তিনি উভয় জনগোষ্ঠীরই নিজস্ব ভূমির পূর্ণ অধিকার আছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি, নিজেদের ভূমির ওপর ফিলিস্তিনি এবং ইসরায়েলিদের পূর্ণ অধিকার আছে। আমাদের এখন একটি শান্তিচুক্তি দরকার যাতে সব পক্ষই স্থিতিশীল ও স্বাভাবিক একটি সম্পর্ক বজায় রাখতে পারে।

বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসরায়েলের সঙ্গে সৌদির সর্ম্পকের উন্নতির পেছনের  কারণ হিসেবে মনে করা হচ্ছে, দুপক্ষই মধ্যপ্রাচ্যে ইরানকে তাদের বিশাল হুমকি বলে মনে করছে। ফলে ইরানের ক্রমবর্ধমান প্রভাব ও শক্তি মোকাবেলার লক্ষ্য নিয়ে ইসরায়েলের সাথে সম্পর্ক ভাল করার উদ্যোগ নিয়েছে সৌদি আরব।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: মিয়ানমার যাচ্ছেন জাতিসংঘের সহকারি মহাসচিব
--------------------------------------------------------

২০১৭ সালের  নভেম্বরে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছিলেন, ইরানকে মোকাবেলায় তার দেশ প্রয়োজনে সৌদি আরবের সাথে গোয়েন্দা তথ্য বিনিময়ের জন্যেও প্রস্তুত রয়েছে।

সেই সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যে ইসলামপন্থী সশস্ত্র জঙ্গিদের উত্থানকেও দুই দেশই বর্তমান সময়ের বড় ঝুঁকি বলে মনে করে। ফলে গত কয়েক মাসে ইসরায়েল-সৌদি আরব সম্পর্ক বেশ নিবিড়ও হয়ে উঠেছে।

এছাড়া সিরিয়া পরিস্থিতি,ইরান এবং লেবাননের হিজবুল্লাহ গ্রুপের ক্রমবর্ধমান প্রভাব বৃদ্ধির ফলেও কিছুটা শঙ্কিত ইসরায়েল।

উল্লেখ্য, ইসরায়েল প্রতিষ্ঠার পর ১৯৬৭ সালে আরব দেশগুলোর সাথে যুদ্ধ করে বিশাল ভূখণ্ড দখল করে।

আরও পড়ুন:

এপি/এমকে  

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়