• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

বিমানে পাওয়ার ব্যাংক বিস্ফোরণ, অতঃপর ...

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২৩:৫৮ | আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৫:০৩
পাওয়ার ব্যাংক থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় যাত্রীবাহী একটি বিমান ছাড়তে তিন ঘণ্টা দেরি হয়েছে। চীনের গুয়ানঝু থেকে সাংহাইগামী একটি বিমানে রোববার এ ঘটনা ঘটেছে। খবর চ্যানেল নিউজ এশিয়ার।

চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্স বলছে, সিটের ওপর লাগেজ রাখার কমপার্টমেন্টে একটি পাওয়ার ব্যাংক থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। চীনের জনপ্রিয় মাইক্রোব্লগিং সাইট উইবুকে এক বিবৃতিতে এমনটাই জানিয়েছে তারা।

এয়ারলাইন্সটি জানাচ্ছে, সিজে৩৫৩৯ ফ্লাইটে সিটের ওপর কমপার্টমেন্টে রাখা একটি ব্যাগ থেকে ধোঁয়া ও আগুন বেরোতে দেখে যাত্রীরা। এসময় যাত্রীরা আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ে।

তবে অগ্নি ও নিরাপত্তা বিভাগের সহায়তায় দ্রুতই আগুন নিভিয়ে ফেলা হয়। ফলে আর কোনো ক্ষতি হয়নি বলে উইবুতে এক পোস্টে জানিয়েছে চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্স।

তারা আরও বলছে, পরে ওই ব্যাগের মালিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যায় পুলিশ। তবে প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, যে পাওয়ার ব্যাংক থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত সেটি তখন অব্যবহৃত ছিল।

পরে ওই যাত্রীদের পরিবহনের জন্য আলাদা একটি বিমানের ব্যবস্থা করা হয়। শেষপর্যন্ত বিমানটি ওই যাত্রীদের নিয়ে স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ৫৩ মিনিটে গুয়ানঝুর বাইয়ুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশে যাত্রা করে। বিমানটি যখন গন্তব্যস্থল সাংহাইয়ের হংকিয়াও আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে, ততোক্ষণে ফ্লাইটে বিলম্ব হয়ে গেছে তিন ঘণ্টা।

এদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট ও যাত্রীরা পানি ও জুস দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে।

ই-স্কুটার, মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ ও পাওয়ার ব্যাংকের মতো পারসোনাল মোবাইল ডিভাইসে (পিএমডি) লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এ ধরনের ব্যাটারি বিপজ্জনক উল্লেখ করে আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান সংস্থা যাত্রীবাহী বিমানে মালামাল হিসেবে এগুলোর পরিবহন নিষিদ্ধ করেছে। তবে অনুমোদিত সীমার মধ্যে কিছু জিনিস হাতে বহন করার অনুমতি রয়েছে।

আরও পড়ুন:

এপি/জেএইচ/এ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়