উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশ | ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৩:২৭ | আপডেট: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৩:৩২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ফাইল ছবি

উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন এটি এ যাবতকালের সবচেয়ে বড় নিষেধাজ্ঞা। নতুন এই নিষেধাজ্ঞা ৫০টির বেশি জাহাজ ও সমুদ্রপরিবহন কোম্পানির ওপর আরোপ করা হয়েছে। খবর বিবিসির।

সর্বশেষ এই নিষেধাজ্ঞায় কোনো ফল না পাওয়া গেলে ভয়াবহ পরিণতির মুখে পড়তে হবে। শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এমনটাই সতর্ক করে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, যদি এই অবরোধ কাজ না করে তাহলে আমরা দ্বিতীয় ধাপের দিকে অগ্রসর হবো। ওই ধাপটি আরও কঠিন হতে পারে, এমনকি বিশ্বের জন্যও দুভার্গ্যজনক হতে পারে।

ট্রাম্প আরও বলেন, তারা সত্যিই একটি দুর্বৃত্ত রাষ্ট্র। যদি আমরা সমঝোতায় পৌঁছতে পারি তবে সেটা দারুন হবে। কিন্তু যদি এমনটা না ঘটে, তাহলে কিছু একটা ঘটতে হবে।

তবে ওই দ্বিতীয় ধাপটি কী হতে পারে সে বিষয়ে বিস্তারিত বলেননি ট্রাম্প।

পরমাণু কর্মসূচি ও মিসাইল পরীক্ষার কারণে ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় পিয়ংইয়ংয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

তবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করে পিয়ংইয়ং ঠিকই তাদের পরমাণু কর্মসূচি ও মিসাইল পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্র বলছে, নতুন এই নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে উত্তর কোরিয়াকে আরও বেশি করে চেপে ধরা সম্ভব হবে। দেশটি তেল ও কয়লা বেঁচে যে রাজস্ব আয় করে সেটির রাস্তাও অনেকটা বন্ধ হয়ে আসবে। যা আগে থেকেই বলবৎ থাকা আবরোধের সহায়ক হিসেবে কাজ করবে।

নতুন তালিকায় উত্তর কোরিয়াভিত্তিক ১৬টি শিপিং কোম্পানির নাম রয়েছে। ওই কোম্পানিগুলোর মধ্যে পাঁচটি হংকং, দুইটি চীন, দুইটি তাইওয়ান, পানামা ও সিঙ্গাপুর থেকে একটি করে রেজিস্টার্ড করা।

আর ২৮টি জাহাজের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে দুটি পানামা, একটি  কমোরস ও তানজানিয়ার পতাকাবাহী জাহাজ।


আরও পড়ুন:

এ/এমকে