• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

কবরে নারীটি আসলে জীবিত ছিলেন!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৪:২১ | আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৪:২৮
রোজংলা আলমেদিয়া দোস সান্তোস নামের ৩৭ বছর বয়সী এক নারীকে মৃত ভেবে  সমাহিত করা হয়েছিল। কিন্তু ওই নারীকে সমাহিত করার পর ১১ দিন তিনি ওই কবরে কফিনের ভেতর জীবিত ছিলেন। এমন ঘটনা ঘটেছে ব্রাজিলের রিয়াচও দাস নেভেসে। খবর ইন্ডিপেনডেন্ট, ডেইলি মেইল।

২৮ জানুয়ারি রোজাংলাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। পরদিন তাকে সমাহিত করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, ওই কবর থেকে চিৎকার শুনতে পান তারা। খবর পেয়ে রোজংলার পরিবারের সদস্যরা এসে কফিনটি আবার খোলেন। ততক্ষণে দেরি হয়ে গেছে অনেক। এসময়ের মধ্যে সত্যিই মারা গেছেন তিনি।

মাটি থেকে রোজাংলার কফিন তোলার ভিডিওটিও জনসম্মুখে এসেছে। কফিনটি খোলার পর অনেকে বলতে শোনা যাচ্ছে অ্যাম্বুলেন্স ডাকার কথা। অন্য কেউ আবার ওই তরুণীর পায়ে হাত দিয়ে বলছেন, শরীর এখনও উষ্ণ আছে।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: এই হচ্ছে ওবামা-ট্রাম্পের মধ্যে পার্থক্য
--------------------------------------------------------

ফেব্রুয়ারির ৯ তারিখে কবরস্থানের আশপাশের মানুষেরা ওই নারীর পরিবারকে জানায় তারা কবর থেকে শব্দ পাচ্ছেন।

কফিন থেকে নিথর দেহ বের করার পর তার শরীরে কয়েকটি জখমের চিহ্ন পাওয়া যায়। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে ভেতর থেকে কফিনটি ভেঙে বেরিয়ে আসার প্রাণপণ চেষ্টা করেছিলেন তিনি।

সান্তোসের বোন ইসামারা আলমেইদা বলছেন, আমরা চিকিৎসকদের কাউকে দোষ দিতে চাই না।  কোনও সমস্যাও করতে চাই না।  কোনও মানুষকে মাটি দেয়ার ১১ দিন পরও তার দেহ উষ্ণ থাকবে- এটা কোনোভাবেই সম্ভব না।

বিষয়টি পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশকে জানানো হয়েছে। পুলিশ বলছে, প্রয়োজন হলে ওই নারীর দেহ আবার কবর থেকে তোলা হবে।

আরও পড়ুন:

এপি/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়