• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

পিয়ংইয়ং সফরের আমন্ত্রণ পেতে পারেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:০৩ | আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:৩৫
দক্ষিণ কোরিয়ায় শীতকালীন অলিম্পিকে উত্তর কোরিয়ার নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশটির নেতা কিম জং উনের বোন কিম ইয়ো জং। আজ অলিম্পিকের উদ্বোধনী দিনে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের সঙ্গে হাতও মিলিয়েছেন কিমের বোন। কূটনীতিক সূত্রের বরাতে সিএনএন বলছে, ‘চলতি বছরের কোনো সময়’ পিয়ংইয়ং সফরের জন্য প্রেসিডেন্ট মুনকে আমন্ত্রণ জানানোর ‘ভালো সম্ভাবনা’ রয়েছে কিম ইয়ো জংয়ের।

তবে এটি এখনও নিশ্চিত নয়। কিন্তু প্রেসিডেন্ট মুনকে এমন প্রস্তাব দেয়া হলে এবং তিনি তা গ্রহণ করলে সেটি হবে ২০০৭ সালের পর কোনো দক্ষিণ কোরীয় প্রেসিডেন্টের পিয়ংইয়ং সফর।

সূত্রগুলো জানাচ্ছে, ১৫ আগস্ট একটি সম্ভাব্য তারিখ হতে পারে। কেননা ১৯৪৫ সালের এই দিনে জাপানের কাছ থেকে মুক্তিলাভ করে কোরিয়া। এদিন উভয় কোরিয়ায় সরকারি ছুটির দিন হিসেবে পালন করা হয়।

ধারণা করা হচ্ছে, আগামীকাল শনিবার মধ্যাহ্নভোজের সময় প্রেসিডেন্ট মুনকে এ প্রস্তাব দেয়া হতে পারে।
--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রে ব্যয় বাজেট পাস, অচলাবস্থার সমাপ্তি
--------------------------------------------------------

মধ্যাহ্নভোজ বৈঠক

১৯৫০-১৯৫৩ সালে কোরীয় যুদ্ধের পর এই প্রথম উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন পরিবারের কেউ দক্ষিণ কোরিয়ায় পা রাখলেন।

এদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, আগামীকাল স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় ব্লু হাউজে কিম ইয়ো জংয়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন।

উচ্চ পর্যায়ের এই বৈঠকে কিম ইয়ো জংয়ের সঙ্গে যোগ দেবেন কিম ইয়ং নাম, চোয়ে হউয়ি ও রি সন কউন। অন্যদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার পক্ষে প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের সঙ্গে থাকবেন জেওং ইউই ইয়ং, ইম জং সুক ও জো মিয়ং গিয়ুন।

তবে প্রেসিডেন্ট মুনকে এ ধরনের প্রস্তাব দেয়া হলে তিনি পিয়ংইয়ং সফর করবেন কি না সে বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি ওই মুখপাত্র।

এক পতাকা তলে দুই কোরিয়া

কোরিয়ান একত্রীকরণ পতাকার ব্যানারে উত্তর ও দক্ষিণ কেরিয়ার অ্যাথলেটরা স্টেডিয়ামে প্রবেশ করে। অলিম্পিকের ইতিহাসে চতুর্থবারের মতো একই পতাকায় মার্চ করলো দুই কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়া জাতীয় সংবাদ সংস্থা বলছে, আন্তর্জাতিক কোনো টুর্নামেন্টে এ ধরনের ঘটনা দশমবারের মতো ঘটলো।

পিয়ংচ্যাংয়ে শীতকালীন অলিম্পিকে ২২ জন অ্যাথলেট পাঠিয়েছে উত্তর কোরিয়া। এসব খেলোয়াড়রা আইস হকি, আইস স্কেটিং এবং স্কি খেলায় অংশ নেবে। সঙ্গে চিয়ার স্কোয়াড তো আছেই। ২০১৪ সালে রাশিয়ার সোচিতে শীতকালীন অলিম্পিকে অংশ নেয়নি উত্তর কেরিয়া। তবে গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে বরাবরই দেখা গেছে উত্তর কোরিয়াকে।  

সহসাই হাসছে না যুক্তরাষ্ট্র

উত্তর কোরিয়া শীতকালীন অলিম্পিকে যোগ দিলেও তাতে সন্তুষ্ট হতে পারছে না ওয়াশিংটন। পিয়ংচ্যাংয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে থাকা দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেছেন, তিনি নিশ্চিত উত্তর কোরিয়ার প্রচারণা কোনো কাজে আসবে না।

এদিকে শনিবারের আনুষ্ঠানিক বৈঠককে সামনে রেখে পেন্স বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার ব্যাপারে ওয়াশিংটন ও সিউলের নীতিতে সহসাই ‘আলো’ দেখছেন না তিনি।

তিনি বলেন, আমরা অতীতের ভুল আবারও করতে চাই না। প্রেসিডেন্ট মুন ও আমি এগুলো নিয়ে গতরাতে আলাপ করেছি। যেকোনো পরিবর্তনের জন্য উত্তর কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ আগে শুরু করতে হবে। সেটিই আলোচনা শুরু হবার প্রথম পর্যায় শেষ নয়।

আরও পড়ুন:

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়