• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

যুক্তরাজ্যের সংসদে প্রথম মুসলিম নারী মন্ত্রীর বক্তব্য

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৯ জানুয়ারি ২০১৮, ০৯:৩১ | আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০১৮, ০৯:৩৬
যুক্তরাজ্যের প্রথম মুসলিম নারী মন্ত্রী হিসেবে গত সপ্তাহে পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের জুনিয়র মন্ত্রীর দায়িত্ব পান নুস ঘানি। কাশ্মীরি-বংশোদ্ভূত নুস ঘানি বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো হাউস অব কমনসের প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেন। খবর এনডিটিভি।  

কাশ্মীর থেকে যুক্তরাজ্যে অভিবাসন নেয়া বাবা-মায়ের সন্তান ঘানির জন্ম বার্মিংহামে। ২০১০ সালে ওই এলাকা থেকে কনজারভেটিভ পার্টির প্রার্থী হওয়ার আগে ঘানি যুক্তরাজ্যের বৃদ্ধদের সহায়তা ও স্তন ক্যান্সারের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলার জন্য অর্থ সংগ্রহের কাজ করেছেন। এছাড়া তিনি ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি ওয়ার্ল্ডেও কাজ করেছেন।

২০১৫ সালে কনজারভেটিভ পার্টির প্রথম মুসলিম নারী এমপি হিসেবে নির্বাচিত হন। এরপর ২০১৭ সালের নির্বাচনে জিতে ইতিহাস গড়েন।

মন্ত্রী হিসেবে হাউস অব কমনসে প্রথম অংশ নেয়ার পর টুইটারে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নুস ঘানি। এতে তিনি লেখেন, ‘যুক্তরাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী হিসেবে আমার সূচনায় একটি ছোট ইতিহাস হয়ে গেছে। প্রথম মুসলিম নারী হিসেবে হাউস অব কমনসের প্রশ্নোত্তর পর্বে বক্তব্য দিয়েছি।’

গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র নতুন বছরের রদবদলের অংশ হিসেবে ৪৫ বছর বয়সী নুস ঘানিকে পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের জুনিয়র মন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেন। সংসদে ক্ষমতাসীন দলের সহকারী হুইপ হিসেবেও নিয়োগ পেয়েছেন তিনি।

বিবৃতিতে ঘানি বলেন, ‘দুটি দায়িত্বই আমার জন্য রোমাঞ্চকর ও সাহসী সুযোগ। উইয়েলডেনের এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই পরিবহণ বিষয়টি নিয়ে আমি মনেপ্রাণে প্রচারণা চালিয়ে আসছি। তবে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বের বাইরেও আমি উইয়েলডেনের পক্ষে শক্তিশালী কণ্ঠস্বর হয়ে উঠবো আর আমাকে নির্বাচনকারীদের সেবা করে যাব।’

এপি/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়