• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

২০৫০ সালে বিশ্বের জনবহুল ১০ শহর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ২৩:১৯ | আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ২৩:২৪
বিশ্বের মোট জনসংখ্যা বিপজ্জনক হারে বাড়ছে। ধারণা করা হচ্ছে ২০৫০ সাল ১০ বিলিয়ন মানুষ থাকবে এই গ্রহটিতে। আর প্রয়োজনের তাগিদেই বাড়ছে শহর। গড়ে উঠছে  মেগাশহর। আধুনিক নাগরিক জীবনের সুবিধা পেতে লাখ লাখ মানুষ শহরমুখী হচ্ছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধির মডেলগুলির উপর ভিত্তি করে টরন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্লোবাল সিটিস ইন্সটিটিউটের করা নতুন এক তালিকায় উঠে এসেছে ২০৫০ সালের বিশ্বের সর্বাধিক জনবহুল ১০টি শহরের নাম। এ তালিকায় ঢাকা শহর রয়েছে ৮ নম্বরে। খবর বিজনেস ইনসাইডার।

১. মেক্সিকো সিটি : বিশ্বের জনবহুল শহরগুলোর মধ্যে অন্যতম মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটি। জাতিসংঘের রিপোর্ট অনুযায়ী ২০১৪ মেক্সিকোর জনসংখ্যা ২ কোটি ৮ লাখের মতো। ১৯৯০ সালে এর জনসংখ্যা ছিল ১ কোটি ৫৬ লাখ। মেক্সিকোর মধ্যে এ শহরটি সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যা ধারণ করে। শহরটির আয়তন ১ হাজার ৪৮৫ বর্গ কিলোমিটার। ২০১৬ সালে শহরটিতে নতুন আরো অনেক বাস চলাচলের রাস্তা যোগ হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে ২০৫০ সালের মধ্যে এ শহরটির জনসংখ্যা বেড়ে হতে পারে ২৪ দশমিক ৩ মিলিয়ন।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়লো বিমান
--------------------------------------------------------

২. নিউ ইয়র্ক : যুক্তরাষ্ট্রের সর্বাপেক্ষা জনবহুল শহর ‘নেভার স্লিপিং সিটি’ নিউ ইয়র্ক। এখানে বাস করে প্রায় ১ কোটি ৮৫ লাখ ৯১ হাজার মানুষ। আর ধারণা করা হচ্ছে ২০৫০ সালের মধ্যে এ শহরটির জনসংখ্যা বেড়ে হতে পারে ২৪ দশমিক ৮ মিলিয়ন।

৩. করাচি : মুসলিম বিশ্বের অন্যতম জনবহুল শহর করাচি। পাকিস্তানের রাজধানী না হয়েও বাণিজ্যিক নগরী হিসেবে পরিচিত। প্রতি মাসেই পাকিস্তানের বিভিন্ন গ্রামাঞ্চল থেকে ৪৫ হাজার কর্মী ভাগ্য বদলাতে এখানে আসেন। ধারণা করা হচ্ছে ২০৫০ সালের মধ্যে এ শহরটির জনসংখ্যা বেড়ে হতে পারে ৩১ দশমিক ৭ মিলিয়ন।

৪. টোকিও : বর্তমানে বিশ্বের সর্বোচ্চ জনবহুল শহরের তালিকার শীর্ষে জাপানের এই রাজধানী। ১৯ শতকের শুরুতে শহরটির জনসংখ্যা ছিল মাত্র ২০ লাখ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রেক্ষাপট পাল্টে শহরটির জনসংখ্যা ৭০ লাখ ছাড়ায়। ১৯৯০ সালে সংখ্যাটি ছিল প্রায় এক কোটির কাছাকাছি। ৮৪৫ বর্গমাইলের শহরটিতে প্রতি বর্গকিলোমিটারে ১০ হাজারের বেশি মানুষ বসবাস করছে। ধারণা করা হচ্ছে ২০৫০ সালের মধ্যে এ শহরটির জনসংখ্যা বেড়ে হতে পারে ৩২ দশমিক ৬ মিলিয়ন।

৫. লাগোস  :  ১৯১৪ সালে নাইজেরিয়ার রাজধানী শহর ছিল লাগোস। নাইজেরিয়ার প্রদেশও বলা যায় শহরটিকে। মূলত এটি একটি বন্দর শহর। বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত জনসংখ্যা বৃদ্ধির শহরগুলোর মধ্যে লাগোস একটি। রাজধানী না হয়েও এখন জনসংখ্যার ভারে নূয়ে পড়েছে শহরটি। ১৯৭০ সালেও বন্দর শহরটিতে জনসংখ্যা ছিল মাত্র ১ কোটি ৪০ লাখ। মাত্র ৪৭ বছরের ব্যবধানে দ্রুত পরিবর্তন ঘটে। বর্তমানে এই শহরটি জনসংখ্যা ২ কোটি ১০ লাখেরও বেশি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০৫০ সালের মধ্যে শহরটিতে বসবাসকারী মানুষের পরিমাণ দ্বিগুণ হতে পারে। ধারণা করা হচ্ছে এ শহরটির জনসংখ্যা বেড়ে হতে পারে ৩২ দশমিক ৬ মিলিয়ন।

৬. কলকাতা : ভারতের পশ্চিম বঙ্গের শহর কলকাতা। ধারণা করা হচ্ছে এ শহরটির জনসংখ্যা বেড়ে হতে পারে ৩৩ মিলিয়ন।

৭. কিনসাসা : গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কঙ্গোর শহর কিনসাসা। ধারণা করা হচ্ছে এ শহরটির জনসংখ্যা বেড়ে হতে পারে ৩৫ মিলিয়ন।

৮. ঢাকা : দ্রুততার সঙ্গে বাড়ছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার লোকসংখ্যা। জাতিসংঘের প্রতিবেদন অনুযায়ী বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল শহরের তালিকায় ১১তম স্থানটি দখল করেছে ঢাকা। ২০১৪ সালে শহরটির জনসংখ্যা ১ কোটি ৭০ লাখের বেশি ছিল। ১৯৯০ সালে এর সংখ্যা ছিল ৯৮ লাখের মতো। ইউনিভার্সিটি অব টরন্টোর গ্লোবাল সিটিস ইনস্টিটিউশন পরিচালিত এক সমীক্ষায় বলা হয়েছে ২০৫০ সাল নাগাদ ঢাকা হবে বিশ্বের অন্যতম দশটি জনসংখ্যাবহুল শহরের একটি। ধারণা করা হচ্ছে  ওই সময় এর জনসংখ্যা দাঁড়াবে ৩৫.২ মিলিয়ন।

৯. দিল্লি : বিশ্বের জনবহুল শহরের তালিকায় নাম রয়েছে ভারতের রাজধানী দিল্লির। জাতিসংঘের রিপোর্ট অনুযায়ী ১৯৯০ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত দিল্লির জনসংখ্যা বেড়েছে অনেক বেশি। দিল্লির বর্তমান জনসংখ্যা দুই কোটি ৫০ লাখের বেশি। মনে করা হচ্ছে ২০৫০ সাল নাগাদ দিল্লির জনসংখ্যা দাঁড়াবে ৩৬ দশমিক ২ মিলিয়ন।

১০.মুম্বাই  : বিশ্বের জনবহুল শহরগুলোর একটি ভারতে মুম্বাই শহরটি। মুম্বাই মূলত বিনোদনের ও আনন্দ আয়োজনের শহর। বিশেষভাবে মুম্বাই ফিল্ম স্টারদের শহর আবার ক্রিকেট স্টারদেরও শহর। পর্যটকদের কাছে মুম্বাই সর্বদা স্বর্গরাজ্য। ধারণা করা হচ্ছে ২০৫০ সাল নাগাদ মুম্বাইয়ের জনসংখ্যা হবে ৪২ দশমিক ০৪ মিলিয়ন।

আরও পড়ুন

 

এপি/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়