• ঢাকা রোববার, ২৪ জুন ২০১৮, ১০ আষাঢ় ১৪২৫

মৃত কয়েদির জেগে ওঠার গল্প!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১২ জানুয়ারি ২০১৮, ১৯:৫৫
ভৌতিক মুভিতে প্রায়ই দেখা যায় লাশঘরে রেখে আসার পর মৃতদেহ জেগে উঠছে। তবে সেলুলয়েডের ফিতায় নয় এবার এমনই ঘটনা ঘটেছে বাস্তবে। বিস্ময়কর এই ঘটনা ঘটেছে স্পেনের একটি লাশঘরে।

কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, বুধবার এক কয়েদির মৃতদেহ মর্গে রেখে আসা হয়। ওই কয়েদি আত্মহত্যার চেষ্টা চালানোর পর তাকে মৃত ঘোষণা করলে ময়নাতদন্তের জন্য তার মৃতদেহ লাশঘরে পাঠানো হয়। তবে লাশঘরের কর্মীদের চমকে দিয়ে হঠাৎই জেগে ওঠেন ওই ব্যক্তি।   

ওই ব্যক্তির স্পেনের উত্তরাঞ্চলীয় অ্যাসটোরিয়াস অঞ্চলের ওভিয়েদোর কাছে একটি কারাগারে বন্দি ছিলেন। ওই কয়েদির নাম প্রকাশ না করে কারাগারের একজন মুখপাত্র জানায়, রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৮টার দিকে তাকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পায় কারারক্ষীরা। পরে তিনজন ডাক্তার ওই ব্যক্তির পরীক্ষা করে জানায় তার মধ্যে ‘জীবনের কোনো চিহ্ন’ নেই।

তবে স্প্যানিশ মিডিয়া জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির নাম গনজালো মনটোয়া। তারা বলছে, ২৯ বছর বয়সী মনটোয়া চুরির দায়ে কারাদণ্ড ভোগ করছিল।

মনটোয়াকে ওভিয়েদোর ফরেনসিক মেডিসিন ইনস্টিটিউটে দিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু ডাক্তাররা তার ময়নাতদন্ত করার আগে মুহূর্তে জেগে ওঠেন মনটোয়া। মনটোয়ার বাবা হোসে কার্লোস মনটোয়ার বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে স্প্যানিশ মিডিয়া।

তিনি বলেন, মনটোয়া বুঝতে পেরেছিল ওকে ময়নাতদন্তের জন্য নেয়া হয়েছে। মনটোয়ার বাবার আরো বলেন, তার ছেলে আত্মহত্যা করতে ট্যাবলেট খাওয়ার পর অচেতন হয়ে গিয়েছিল।

তিনি বলেন, গনজালোর ময়নাতদন্ত করতে ডাক্তাররা তার শরীরের বিভিন্ন অংশের ওপর মার্ক তৈরি করেছিল।

এদিকে এ ঘটনার পর স্পেনের কারা কর্তৃপক্ষ ও অ্যাসটোরিয়াস অঞ্চলের সরকার তদন্ত শুরু করেছে।

এ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়