close
ঢাকা, সোমবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৮ | ০৯ মাঘ ১৪২৪

যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস-প্রেসিডেন্টের ইসরায়েল সফর স্থগিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৯:৫৯ | আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ২০:১৭
ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের মধ্যপ্রাচ্যে শান্তির উদ্যোগে সৃষ্ট সংকটের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের আগামী সোমবারের ইসরায়েল সফর স্থগিত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তার সফর বাতিলের খবর জানিয়েছে ইসরায়েলের গণমাধ্যম ওয়াল্লা নিউজ।

ইসরায়েলের পার্লামেন্ট নেসেটের এক মুখপাত্র এ তথ্য নিশ্চিত করে জানায়, আগামী সোমবার পেন্সের ইসরায়েল সফর হচ্ছে না।

তবে আগামী বুধবার ইসরায়েল সফর করতে পারেন বলে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

পার্লামেন্টের সফরসূচি অনুসারে, বুধবার সন্ধ্যায় তিনি ইসরায়েল পৌঁছবেন। বৃহস্পতিবার দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করার কথা রয়েছে পেন্সের। শুক্রবার প্রেসিডেন্টের বাসভবন ও জেরুজালেমের ইয়াদ ভাশেম হলোকাস্ট স্মৃতিস্থাপনা ও জাদুঘর পরিদর্শন করতে পারেন। এছাড়া বুধবার তিনি ওয়েস্টার্ন হল পরিদর্শন করবেন বলেও আশা করা হচ্ছে।

মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি উদ্যোগে জড়িত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলছেন, চলমান জেরুজালেম সংকটের কারণেই মাইক পেন্সের সফর পেছানো হয়েছে। কিন্তু ইসরায়েলের গণমাধ্যম বলছে, আমেরিকার কংগ্রেসে কর সংস্কারের বিষয়ে আলোচনার জন্য তার সফর পেছানো হয়েছে।

ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষের এক কর্মকর্তা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস-প্রেসিডেন্টের সফর পেছানো নিয়ে আমাদের কোনো মাথাব্যথা নেই। এই সফরে আমরা তাদেরকে সহযোগিতা করছি না।

গত সপ্তাহে ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করার পর থেকে পেন্সের সফর ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে ফিলিস্তিনে। তারা পূর্ব জেরুজালেমকে ভবিষ্যৎ ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে চায়।

পেন্সের এই সফরে ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে তার বৈঠকের কথা থাকলেও সেই সম্ভাবনা এখন ক্ষীণ হয়ে এসেছে। আব্বাসের কূটনৈতিক মুখপাত্র মাজদি আল-খালিদি বলেছেন, ফিলিস্তিনে পেন্সের সঙ্গে কোনো বৈঠক হবে না। জেরুজালেম সংক্রান্ত সিদ্ধান্তে চূড়ান্তসীমা অতিক্রম করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

ক্রিসমাসের আগে ইসরায়েল সফর করার কথা থাকলেও কোনো চার্চ পরিদর্শন করার কথা উল্লেখ নেই খ্রিস্টধর্মাবলম্বী পেন্সের সফরসূচিতে। বেথেলহেম শহর ইতোমধ্যে ঘোষণা করেছে যে তারা পেন্সের সফর মানবে না। এদিকে মাইক পেন্সকে স্বাগত না জানাতে ফিলিস্তিনের কর্মকর্তারা দেশটির স্থানীয় যাজকদের ওপর চাপ প্রয়োগ করছেন। এক্ষেত্রে তার সঙ্গে বৈঠক করতে অস্বীকৃতি জানানো মিসরের কপটিক খ্রিস্টানদের অনুসরণ করতে ফিলিস্তিনের যাজকদের উৎসাহিত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেথেলহেমের মেয়র অ্যান্টন সালমান বলেছেন, সবশেষ তথ্য অনুযায়ী পেন্স বেথেলহেম সফরে যাচ্ছেন না। তাকে স্বাগত জানানোর পরিকল্পনাও আপাতত নেয়া হয়নি।

কে/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়