close
ঢাকা, শনিবার, ২৪ জুন ২০১৭ | ১০ আষাঢ় ১৪২৪

অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন নওয়াজ কন্যা

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১৫:৪৫ | আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১৬:০৮
পানামা পেপারস ফাঁসের পর অর্থ পাচারের অভিযোগ থেকেও রেহাই পাচ্ছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ। বৃহস্পতিবার অ্যাপেক্স আদালতের রায়ে কার্যত মরিয়মকে বিরোধী দল তেহরিক ই ইনসাফ ও অন্যান্য আবেদনকারীদের অভিযোগ থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার ডনের খবরে জানা যায়, সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুসারে, বাবার (নওয়াজ শরিফ) কাছ থেকে উপহার নেয়ার অর্থ এ নয় যে, মরিয়ম তার ওপর নির্ভরশীল ছিলেন।

জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এবং সাবেক উপঅ্যাটর্নি জেনারেল তারিক জাহাঙ্গিরি বলেন, মরিয়ম নওয়াজকে অভিযোগ থেকে সাময়িক মুক্তি দেয়া হয়েছে। তবে যদি জেআইটি তার বিরুদ্ধে প্রতারণামূলক তথ্যপ্রমাণ পায় তাহলে তাকে বিচারের সম্মুখীন হতে হবে।

বিরোধীদের করা আবেদনে অভিযোগ করা হয়, লন্ডনের সম্পদের লভ্যাংশের মালিক ছিলেন মরিয়ম। ওই সম্পদে তার দু’ভাই হাসান ও হুসেইন শরিফের যৌথ মালিকানা রয়েছে। আরো অভিযোগ করা হয়, মরিয়ম যেহেতু বাবার ওপর নির্ভরশীল ছিলেন সেহেতু প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের সম্পদ বিবরণে মেফেয়ার প্রপার্টি ও ফ্ল্যাটের বিষয়টি উল্লেখ করা উচিত ছিল।

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বলা হয়, মরিয়ম নওয়াজ বিভিন্ন উপলক্ষে বাবার কাছ থেকে উপহার হিসেবে অর্থ গ্রহণ করেছেন। কিন্তু আইনত তিনি বাবার ওপর নির্ভরশীল ছিলেন না।

রায়ে আরো বলা হয়, আমরা আরও লক্ষ্য করেছি মরিয়মের কৃষি জমির মালিকানা রয়েছে, তার নির্দিষ্ট আয় রয়েছে, বিভিন্ন কোম্পানির ২০ কোটিরও বেশি শেয়ার হোল্ডার তিনি। মরিয়মের স্বামী অবসরপ্রাপ্ত সামরিক কর্মকর্তা। তিনিও ভালো অবসরভাতা পান। ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির সদস্য হওয়ায় তিনি ভালো ভাতাও পান।

আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের সময় বলা হয়, মরিয়ম নওয়াজ শরিফের বাড়িতে বসবাস করেন। রায়ে বলা হয়, মরিয়ম তার দাদির মালিকানাধীন একটি অংশে বসবাস করেন। এ কারণে তিনি নওয়াজ শরিফ বা অন্যদের ওপর নির্ভরশীল নন। এসব কারণে মরিয়ম মেফেয়ার প্রপার্টিজের লভ্যাংশের মালিক কি না, তা অপ্রাসঙ্গিক। বাবা নওয়াজ শরিফের ওপর মরিয়মের নির্ভরশীলতার বিষয়ে আইনগত কোনো তথ্যপ্রমাণ মেলেনি। তাই মামলার এই দিকটি নিয়ে আর আলোচনার প্রয়োজন নেই।

এপি / এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়