• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

'সমাজ ভাঙতে একজন রোকেয়া প্রয়োজন'

তাসলিমা আক্তার মুক্তি
|  ২৫ অক্টোবর ২০১৭, ১৭:৩১ | আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০১৭, ১৭:৫১
দেশে নারী মুক্তি হয়নি। বরং নারী আরো পিছিয়েছে। বর্তমান সমাজে নারীদের সঙ্গে যা ঘটছে তা একাত্তরকেও হার মানাচ্ছে। দেশ স্বাধীন হয়েছে কিন্তু নারীরা এখনো স্বাধীন হইনি৷ তারা কোথাও নিরাপদ নয়৷ এটা লজ্জার কথা। একটা মেয়েরও কোনো নিরাপত্তা নেই এই স্বাধীন দেশে। এ জন্যই কি ত্রিশ লক্ষ মানুষ জীবন দিয়েছিল? 

পৈশাচিক কাজ করার সময় নিপীড়করা কি একটি বারের জন্যও ভাবেনা যে, তারাও কোনো মায়ের সন্তান বা ভাই? একবারের জন্যও কি মায়া হয়নি রূপার জন্য? তনু'র জন্য? আমাদের দেশে বিচারের দীর্ঘসূত্রীতায় দুর্বৃত্তরা পার পেয়ে যায়। বিচার নাই এজন্যই বারবার একই রকম ঘটনা ঘটছে!

ধর্ষকদের দলই আবার ধর্মীর জুজুর আওয়াজ তুলছে। এ সমাজে পুরুষ পরিচয়টা অনেক বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে! এটা লজ্জার! এ সমাজ ভাঙতে একজন বেগম রোকেয়া বড় বেশি প্রয়োজন। যিনি পুরুষতান্ত্রিক সমাজের নিষ্ঠুরতা ও পৈশাচিকতার বিরুদ্ধে নারীদের একত্রিত করে প্রতিরোধ গড়বেন। 

ধর্ষকের সাজা মৃত্যুদণ্ড চাই। দেশের প্রচলিত আইন অনেক দুর্বল, আছে আইনের ফাক। যা যুগোপযোগী করা প্রয়োজন। একদল আইনজীবী আছেন, যারা নারী নিপীড়কদের সহায়তা করে চলেছেন। যতদিন রাজনৈতিক নেতারা লোভ-লালসা থেকে সরে আসতে পারবেন না, ততদিন জনগণের মুক্তির প্রশ্নই আসে না। 

আজকাল পাবলিক টয়লেটের টেন্ডার নিয়েও অপরাজনীতি হয়। সভ্যতা আর মানবিকতার সিরিয়ালতো অনেক পরের কথা। 

সবার প্রতি অনুরোধ, জঘন্যতম কাজটি করার আগে অন্তত একবার ভাবুন, আমি আপনার মেয়ে, আপনার বোন, আপনার সন্তান! আমার নিরাপত্তা দেবার দায়িত্ব এই সমাজের, এই দেশের এবং আপনারও!

 

তাসলিমা আক্তার মুক্তি, কবি ও লেখক

(প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। এ জন্য আরটিভি অনলাইন দায়ী নয়।)

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়