• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

‘বড় কিছু না হোক, শুধু চাই পানিটা যেন নেমে যায়’ (ভিডিও)

আরটিভি
|  ০৯ জুলাই ২০১৮, ১৪:৫৩ | আপডেট : ০৯ জুলাই ২০১৮, ১৫:৪৭
সামান্য বৃষ্টি হলেই, রাজধানীতে শুরু হয় জলজট। এই জলজট ক্রমান্বয়ে বাড়ায় যানজট। বাড়ে নগরবাসীর দুর্ভোগ। বছরের পর বছর এভাবেই চলছে, কিন্তু মুক্তি মিলছে না। সাধারণ মানুষের চাওয়া বড় কিছু না হোক, অন্তত দ্রুত যেন পানিটা নেমে যায় সেই ব্যবস্থা করুক সরকার। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে, সুফল পেতে আরও কয়েক বছর লাগবে। 

বৃষ্টি শুধু পড়েই না। বৃষ্টির পানি রাজধানীর প্রধান প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে অলি-গলি সব পথেই থেকে যায়, যা ক্রমান্বয়ে তৈরি করে জলজট। এই জলজট বাড়ায় যানজট, বাড়ায় মানুষের দুর্ভোগ।

পানির সঙ্গে মিশে যায় বর্জ্য, অগত্যা দুর্গন্ধ ও ময়লাযুক্ত পানিতেই হাঁটতে হয় নগরবাসীকে। মাঝে মাঝে বাসাবাড়িতে সেই নোংরা পানি ঢুকে অসহনীয় বিড়ম্বনা তৈরি করে।

রাজধানীর রাজারবাগ, কমলাপুর, আরামবাগ, শান্তিনগর, মালিবাগ, মৌচাক ও মগবাজার, ভুতের গলিসহ অনেক এলাকায় বৃষ্টি হলেই তীব্র জলাবদ্ধতা দেখা যায়। এসব সড়কে যানজটের চিত্র ভয়াবহ আকার ধারণ করে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করা ছাড়া আর কিছুই করার নেই বলে জানান এলাকাবাসীরা।

এই সমস্যা বছরের পর বছর ধরে চলছে। কিন্তু কোন সুরাহা মিলছে না, এ থেকে সুরক্ষাও পাচ্ছে না নগরবাসী। ভুগতে ভুগতে অতিষ্ঠ মানুষগুলো বলছেন, অন্য দুর্ভোগ যাই হোক অন্তত পানিটা যাতে দ্রুত নেমে যাওয়ার ব্যবস্থাটা পাকাপোক্ত করে দেয় সরকার।

এই সমস্যা দেখভালের জন্য কর্তৃপক্ষের অভাব নেই। এগুলোর একটি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল বলেন, দ্রুত পানি সড়ক থেকে নামানোর জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে সেজন্য আরও কয়েক বছর সময় প্রয়োজন। আমরা রাস্তায় জমা পানিগুলোকে ওয়াসা লাইনের সঙ্গে সংযোগ করা চেষ্টা করছি। যাতে বৃষ্টির পানিগুলো ওয়াসার লাইন দিয়ে বের হয়ে চলে যায়।

এমন আশ্বাস মেলে সংশ্লিষ্ট প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকেই। কিন্তু কাজের কাজ কিচ্ছু হয় না। নগরবাসী আশা নিয়েই আছে, হবে হয়তো একদিন। তবে সেই একদিনটা যেন খুব শিগগিরি আসে সেই প্রত্যাশা শহরের দুই কোটি মানুষের।

এসএস 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়