close
ঢাকা, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭ | ০২ পৌষ ১৪২৪

নতুন ভ্যাট আইন চালু হলে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ বাড়বে

সেলিম মালিক
|  ১৬ জুন ২০১৭, ১০:৫৩
১৫ শতাংশ ধরে নতুন ভ্যাট আইন চালু হলে পণ্যের দাম বেড়ে যাবার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের ওপর দুর্ভোগ নেমে আসার আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ী ও বিশ্লেষকরা। তাই সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট পাশ হবার আগেই, এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান তারা।

গ্রাহক পর্যায়ে প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ বিলের ওপর পাঁচ শতাংশ ভ্যাট আদায় করে এনবিআর। তবে আগামী ১ জুলাই থেকে এনবিআরকে এ ভ্যাট আদায় করতে হবে ১৫ শতাংশ হারে। অর্থ্যাৎ, কোনো গ্রাহকের বিদ্যুৎ বিল যদি এক হাজার টাকা আসে, তাকে এ বিলের সঙ্গে আগের ৫০ টাকা বদলে এখন ভ্যাট দিতে হবে ১৫০ টাকা। একইভাবে গ্যাস বিলের ওপর ১৩ শতাংশের পরিবর্তে এখন ভ্যাট দিতে হবে ১৫ শতাংশ। তাই অতি জরুরি এ দু’টি সেবায় আরেক দফা দাম বাড়বে এমন আশঙ্কাই করা হচ্ছে।

২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট থেকে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন করা হলে, এভাবেই বেড়ে যাবে পোশাক, আসবাবসহ অনেক অতি প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম।

অর্থনীতিবিদ ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন হলে দু’টি পণ্যের দাম বাড়বে। সার্বিক মূল্যস্ফীতি হবে।

ঢাকা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি তৌফিক এহসান বলেন, ভ্যাট ছাড় দেয়া হোক অন্ততঃ তিন বছরের জন্য। ১৫ শতাংশ ভ্যাট ২০১৯ সালে কার্যকর করা হোক।

এনবিআর’র সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ মনে করেন নতুন ভ্যাট আইনে কিছু ক্ষেত্রে পরিবর্তন আনা সম্ভব।

ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান বলেন, আশা করি সাধারণ মানুষের ভোগান্তি বাড়ায়, বাজেটে এমন সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবেন অর্থমন্ত্রী। নিত্য প্রয়োজনী দ্রব্যের ওপর থেকে ভ্যাট তুলে নেবেন।

বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য ধরা হয়েছে দুই লাখ ৮৮ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে ভ্যাট থেকে এনবিআর সংগ্রহ করবে ৯১ হাজার ২৫৪ কোটি টাকা।

জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়