close
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৭ | ০২ কার্তিক ১৪২৪

বুড়িগঙ্গার পর এবার ট্যানারির শিকার ধলেশ্বরী নদী (ভিডিও)

সেলিম মালিক
|  ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১১:১২ | আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০১৭, ১৭:১১
সাভারের চামড়া শিল্পনগরীর পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে ধলেশ্বরী নদী। এখন পর্যন্ত এই শিল্পনগরীতে ট্যানারি স্থানান্তর হয়েছে মাত্র ৫০টি।   কিন্তু ট্যানারির বর্জ্যে এরইমধ্যে কালচে হতে শুরু করেছে নদীর পানি। দুর্গন্ধ ও দূষণে নদী হয়ে পড়ছে মাছ শূন্য । বুড়িগঙ্গার পর এবার ট্যানারি শিল্পের দ্বিতীয় শিকার হতে যাচ্ছে ধলেশ্বরী নদী। 

কেবল এক বছর আগের কথা। ধলেশ্বরী নদীতে মাছ ধরার আশায়, ভেঙ্গে যাওয়া নৌকা ফের মেরামত করেছে সাভারের ঝাউচর গ্রামের আজগর মাঝি। এই নদীতে মাছ ধরেই সংসার চলতো তার। কিন্তু এক বছরেই সব কেমন যেন এলোমেলো হয়ে গেলো! এ নদীতে এখন আর মাছ ধরা পড়ে না। সেখানে শুধু ভেসে উঠে মরা মাছ।

এদিকে এ নদীটি  কেবল মাছ শূন্যই হচ্ছে না, চামড়া শিল্পনগরীতে ট্যানারির সংখ্যা যতো বাড়ছে ততোই রং পাল্টাতে শুরু করছে পানি।

স্থানীয়রা জানান, বিষাক্ত এ নদীর পানিতে গোসল বা কাপড় ধুয়ে স্বস্তি পাচ্ছেন না তারা । তারা আরো জনান, এ পানিতে গোসল করলে শরীর চুলকায় ও কাপড় ধুলে তা পরিষ্কার হয় না।

কাঁচা চামড়া থেকে বের হয় ৪০ ধরনের বিষাক্ত বর্জ্য। ২০১২ সালে এই বর্জ্য শোধনের জন্য শিল্পনগরীতে ‘কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার’ বা সিইটিপি’র নির্মাণকাজ শুরু হয়। যা এখনও পুরোপুরি শেষ হয়নি।

বিশেষজ্ঞদের অভিযোগ,  ক্রটিপূর্ণ সিইটিপি থেকে বিষাক্ত পানি পাইপ দিয়ে নদীতে ফেলার কারণেই ধলেশ্বরীর এই হাল!

তবে পরিবেশবাদীদের দাবি, পরিবেশ অধিদপ্তরের মানমাত্রা মেনেই সিইটিপি’র পানি ধলেশ্বরীতে ফেলতে হবে।

আরকে / এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়