ঢালিউডে যত ‘টাকা’র সিনেমা

প্রকাশ | ০৬ জানুয়ারি ২০১৭, ১৮:৫৯ | আপডেট: ০৭ জানুয়ারি ২০১৭, ১২:১২

এ এইচ মুরাদ

বলা হয়ে থাকে,  টাকা  অর্থাৎ অর্থই অনর্থের মূল। কিন্তু সব ক্ষেত্রেই এটি সত্য কি? অন্তত ‘টাকা’যুক্ত নামের ঢাকাই যতো চলচ্চিত্রের ব্যবসা সাফল্য বলছে ভিন্ন কথা।

বিপুল অর্থ  বিনিয়োগ করেও কোনো কোনো ছবির ধরা খাওয়ার বাস্তবতা যেমন আছে। তেমনি আবার অর্থকে উপজিব্য করে বানানো ছবির অর্থ উপার্জনের উদাহরণ কৌতূহলোদ্দীপক নিশ্চয়ই।

একটি সুন্দর নাম যেকোনো শিল্পকর্মের মান বাড়িয়ে দেয় বহুগুণ। ঢাকাই চলচ্চিত্রের অনেক নাম নিয়েই আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে। পরিচালক তার গল্পের সঙ্গে মিল রেখে সিনেমার নাম দেবেন, সেটাই স্বাভাবিক। এদেশের দর্শকদের নাম নিয়ে বিশেষ কৌতূহল না থাকলেও সুন্দর একটি নাম যে কোনো দর্শককেই আকৃষ্ট করে, এটি বলার অপেক্ষা রাখেনা। তারা ভালো গল্পের সিনেমা পেলে তা সবসময়ই লুফে নেন।

দেশীয় সিনেমায় 'টাকা' কথাটি নিয়ে অনেক চলচ্চিত্র তৈরি হয়েছে। বেশিরভাগ পেয়েছে দর্শকপ্রিয়তা। টাকার সিনেমা মানেই যেন হিট, সুপার হিট। টাকা নিয়ে তৈরি সেসব সিনেমার কয়েকটি তথ্য তুলে ধরা যাক।            

 

টাকা আনা পাই

১৯৭০ সালে মুক্তি পায় সিনেমাটি। বিখ্যাত লেখক ও চলচ্চিত্রকার জহির রায়হানের লেখায় চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন বাবুল চৌধুরী। সঙ্গীতে পরিচালনায় ছিলেন আলতাফ মাহমুদ। অভাবের সংসারে মোক্তার ছেলে। কোনো এক ঘটনায় বিয়ে করেন শহরের বিত্তশালী আহ্লাদী মেয়েকে। নানান টানাপোড়েন শেষে শুভ পরিণয়। ছবিতে রাজ্জাক ও ববিতার রসায়ন ছিল দেখার মতো। যদিও অনেক রাগী মেয়ের ভূমিকায় দেখা গেছে ববিতাকে। তবে ছবিটি দেখার সময় ববিতার প্রেমে পড়েননি এমন কথা কেউ কী বুকে হাত রেখে বলতে পারবেন? যারা ছবিটিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন রাজ্জাক, ববিতা, গোলাম মোস্তফা, বেবী জামান, শওকত আকবর।

টাকার পাহাড়

মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত 'টাকার পাহাড়' ১৯৯৩ সালে মুক্তি পায়। এখনকার জনপ্রিয় অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজলের এটি প্রথম সিনেমা। নায়ক হিসেবে অভিষেক ঘটলেও ডিপজল পরবর্তীতে খল-অভিনেতা হিসেবে তুমুল জনপ্রিয়তা পান।  

দেন মোহর

'শুধু একবার শুধু একবার শুধু একবার বলো ভালবাসি' জনপ্রিয় গানটি দেন মোহর সিনেমার। খালিদ হাসান মিলু, সাবিনা ইয়াসমিনের গানটিতে ঠোঁট মিলিয়েছিলেন সিনেমার নায়ক-নায়িকা সালমান শাহ্‌ ও মৌসুমী। দু'পরিবারের দ্বন্দ্ব থাকা সত্ত্বেও তাদের ভালোবাসার আকুলতা মেনে নেন পরিবার। কিন্তু বাঁধ সাধে ওই টাকাই। বিয়ের আসরে মেয়েপক্ষ  ৫০ লাখ টাকা ও একশ’ একর জমি দাবি করে নায়কের পরিবারের কাছে। নায়কের পরিবার সেটি মেনে নিয়ে বিয়েতে সম্মতি দেন। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই শুরু হয় হৃদয় বিদারক ঘটনার। নব্বইয়ের দশকে মুক্তি পাওয়া সিনেমাটি পরিচালনা করেন শফী বিক্রমপুরী।  

কোটি টাকার কাবিন

সিনেমার নামই বলে দেয় কাবিনের দেন দরবার নিয়ে কাহিনি। সিনেমাতে শাকিব-অপুর বিয়ের কাবিন নিয়ে কাহিনি টানটান রূপ নেয়। ২০০৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাটি ব্যবসা সফল হয়। এফ আই মানিক পরিচালিত সিনেমাতে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, অপু বিশ্বাস, রাজ্জাক।

এক টাকার বউ

সিনেমাটির 'মন দিলাম প্রাণ দিলাম আর কী দেবো রে' গানটি ছিল মানুষের মুখে মুখে। গানের জনপ্রিয়তার সঙ্গে ছবিটিও ব্যবসা করে। ত্রিমুখী প্রেমের ছবিতে অভিনয় করেন শাকিব খান, শাবনূর ও রোমানা। পি এ কাজল পরিচালিত ছবিটি মুক্তি পায়  ২০০৮ সালে।

একশো কোটি টাকা

মোহাম্মদ হোসেন জেমী পরিচালিত এ ছবিতে অভিনয় করেছেন শাকিল খান, আলেকজেন্ডার বো। দেশের সিনেমার অশ্লীল সময়ে ছবিটি তৈরি হয়। বেশ কয়েকটি উত্তেজক দৃশ্যেও ছিল এতে।

কোটি টাকার ফকির

এটি ছিল চলচ্চিত্রে সুস্থ ধারায় ফেরার ছবি। সিনেমার মাধ্যমে প্রথমবার নায়করাজ রাজ্জাক, সম্রাট এবং বাপ্পারাজ পরিবারের তিন সদস্য এক সঙ্গে কোনো কমেডি সিনেমায় অভিনয় করছেন। কমেডি ধাঁচের হলেও ছবিতে যুবসমাজের নানা অবক্ষয় দেখানো হয়েছে। তাদের সঙ্গে অভিনয় করেছেন নিপুণ ও স্বাগতা।

টাকার চেয়ে প্রেম বড়

ব্যবসায়ী শরাফত চৌধুরী তার একমাত্র নাতি সৌরভকে বিয়ে করাতে চান। প্রতিদিন ঘটক পাত্রীর ছবি নিয়ে আসেন, অন্যদিকে ফিরিয়ে দেন সৌরভ। তার কথা, তিনি নিজে যতদিন মনের মানুষ খুঁজে না পাবেন ততদিন বিয়ে করবেন না। অবশেষে এক বন্ধুর বোনের বিয়েতে গ্রামে বেড়াতে গিয়ে সৌরভ খুঁজে পান স্বপ্নকন্যাকে। গ্রামের প্রভাবশালী সরকার পরিবারের একমাত্র মেয়ে প্রিয়ার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক হয় সৌরভের। বাধা হয়ে দাঁড়ান প্রিয়ার বাবা আর চাচা শমশের। তারা জীবন থাকতে চৌধুরী পরিবারের সঙ্গে সম্পর্ক করবেন না। চৌধুরী পরিবারের সঙ্গে সরকার পরিবারের কীসের এতো দ্বন্দ্ব? দ্বন্দ্বের কারণে কী ধ্বংস হয়ে যাবে সৌরভ-প্রিয়ার ভালোবাসা? নষ্ট হয়ে যাবে দু'টো জীবন? শাহাদাৎ হোসেন লিটন পরিচালিত ছবিতে অভিনয় করেছেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস।

এক টাকার দেন মোহর

সিকদার ও তালুকদার দু'পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু এক টাকা দেন মোহরে তাদের ছেলে-মেয়ের বিয়ে নিয়ে। ঝামেলা হতো না, যদি ওই সম্পর্ক টিকে থাকতো। কিন্তু সেই প্রেমের বিয়ে অস্বীকার করেন ছেলেটি। অন্য মেয়েকে বিয়ে করতে যান তিনি। মেয়েটি বিষ পানে আত্মহত্যা করেন। তালুকদার-সিকদারদের দ্বন্দ্ব সেখান থেকেই। বহুদিন পর দু'পরিবারের ছেলে মেয়ে প্রেমে পড়ে। পরিবারের একটি মহল এ বিয়ে মেনে নেয়। তবুও বিয়ের আসরে এক টাকার দেন মোহর নিয়ে ঝামেলা হয়।

বিত্তশালী পরিবারের ছেলে-মেয়ের বিয়েতে কেনো  সামান্য একটা টাকার দেন মোহর নিয়ে সমস্যা হবে। যাই হোক এভাবেই এগিয়ে যায় সিনেমার গল্প। অভিনয় করেছেন শাকিব খান, অপু বিশ্বাস, সোহেল রানা, সুজাতা, উজ্জ্বল, সুচরিতা, মিশা সওদাগর। সিনেমাটি পরিচালক করেন এম বি মানিক।

টাকা

জনপ্রিয় জুটি রিয়াজ-পূর্ণিমা 'টাকা' নামে একটি সিনেমায় অভিনয় করেন। এতে শক্তিমান অভিনেতা হুমায়ুন ফরিদী ও আলমগীর কাজ করেছিলেন। সামাজিক অ্যাকশন ঘরানার সিনেমাটি দর্শকদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে।

কোটি টাকার প্রেম

গতানুগতিক সামাজিক প্রেমের সিনেমা কোটি টাকার প্রেম। যথারীতি অভিনয় করেছেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। পরিচালনা করেছেন সোহানুর রহমান সোহান।  

এক টাকার ছেলে কোটি টাকার মেয়ে

স্বামীকে বাড়ির চাকর বানিয়ে রাখেন স্ত্রী। বাবার কারণেই আসলে বড়লোকের মেয়ে বিয়ে করেছিলেন গরিব ঘরের সন্তানকে। তাদের ঘরে দু’টি কন্যাসন্তান জন্ম নেয়। তারা বড় হয়ে ওঠে। অন্যদিকে এক গরীব মায়ের ঘরে জন্ম নেয় দু'পুত্রসন্তান। তারপর শুরু হয় অন্য এক গল্প। অভিনয় করেছেন মারুফ, সাহারা, রাজ্জাক, ডলি জহুর। পরিচালনায় কাজী হায়াৎ। 

ব্ল্যাকমানি

কাজ না করেই কোটিপতি হবার স্বপ্ন দেখেন শ্রাবণ। একটা সময় তার হাতে অফুরন্ত টাকা আসে। সেই টাকা ছিল কালো টাকা। কালো টাকাই তার জীবনে কাল হয়ে দাঁড়ায়। সাফি উদ্দিন সাফি পরিচালিত ছবিটি ২০১৫ সালে মুক্তি পায়। অভিনয়ে ছিলেন সাইমন সাদিক, কেয়া ও মৌসুমী হামিদ।

এক কোটি টাকা

টাকার পাহাড় সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখা অভিনেতা-প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজল দীর্ঘ বিরতি শেষে নতুন বছরে (২০১৭) অভিনয়ে ফিরেছেন। ফের টাকা নিয়ে ফিরছেন তিনি। নতুন সিনেমার নাম দিয়েছেন এক কোটি টাকা। অভিনয় করছেন ডিপজল, রেসি, বাপ্পি, অমৃতা। পরিচালনা করছেন ছটকু আহমেদ। 

অর্থই অনর্থের মূল- প্রচলিত এ কথা মিথ্যা প্রমাণ করে ঢালিউডে অর্থ অর্থাৎ টাকা সংক্রান্ত বেশিরভাগ সিনেমাই পেয়েছে দর্শকপ্রিয়তা। 

এইচএম/এসজেড