বাংলাদেশ আমার দেশ, আমার নিঃশ্বাস: অঞ্জু ঘোষ

প্রকাশ | ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:০৫ | আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:২৪

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

মাতৃভূমিতে পা রাখতে পেরে ভীষণ ভালো লাগছে। মনে হচ্ছে তীর্থে পা রেখেছি। একটা সময় ইন্ডাস্ট্রিতে প্রচুর কাজ হতো। কাজ করতে করতে মনে হতে শুটিংটাই ঘর-বাড়ি। তবে আজকে ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা দেখে খারাপ লাগছে। অষ্টম-নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছিলাম। এরপর তো অনেকই হিট ছবি উপহার দিয়েছি। ভাবছি আবারও ফিরতে হবে। অভিনয় করতে হবে। আমি আসলে যদি একটুও পরিবর্তন হয়। বলছিলেন চিত্রনায়িকা অঞ্জু ঘোষ।

২২ বছর আগে দেশ ছেড়েছিলেন। আর ফেরেননি। কোনও অভিমান ছিল কী? জবাবে অঞ্জু ঘোষ বলেন, আমার কোনোদিন কারও ওপরে অভিমান ছিল না। কারও ওপরে কোনও ক্ষোভও নেই। আমি দুইদিনের জন্যে কলকাতায় গিয়েছিলাম। মায়ের কথাতেই সেখানে থেকে যাই। তারপর কলকাতায় একের পর এক ছবি করতে থাকি। বাংলাদেশ আমার দেশ, আমার নিঃশ্বাস। যে নিঃশ্বাস নিয়ে সেখানে গিয়েছিলাম। সেই নিঃশ্বাস নিয়ে এখনও বেঁচে আছি।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : বেদের মেয়ে জোসনার ওপর শাহজাদা সেলিমের মধুর প্রতিশোধ
-------------------------------------------------------

অসংখ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন অঞ্জু ঘোষ। তবে ক্যারিয়ার জুড়ে ‘বেদের মেয়ের জোসনা’র নামটি জ্বলজ্বল করে। মজার ব্যাপার হলো এই ছবিটি করার জন্যে তাকে অনেক প্রযোজকই তখন না করেছিলেন। নানা ঘটনার পরিক্রমায় শেষ পর্যন্ত কাজটি করেন ইলিয়াস কাঞ্চন ও অঞ্জু ঘোষ। তারা দুজন পরিকল্পনা করেই ছবিটি করেন। কাজের সময় কাঞ্চনের অনেক সহযোগিতা পেয়েছিলেন বলে জানান অঞ্জু।

অঞ্জু ঘোষ বলেন, এই ছবিতে একটা মাটির টান ছিল। গ্রাম বাংলার মানুষ এটাকে নিজের ছবি হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন। এটাই ছবিটির সাফল্য এনে দিয়েছিল।

দীর্ঘ ২২ বছর পর বুধবার (৫ সেপ্টেম্বর) কলকাতা থেকে বাংলাদেশে আসেন অঞ্জু ঘোষ। আগামীকাল ১০ সেপ্টেম্বর কলকাতায় ফিরে যাবেন তিনি। এবারের সফরে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে তাকে আজীবন সদস্য করা হয়। শিগগিরই আবারও দেশে ফেরার ইচ্ছে আছে বলে জানান অঞ্জু ঘোষ।  

এই সফরে অঞ্জু-ইলিয়াস কাঞ্চনকে জুটি করে ‘জোসনা কেন বনবাসে’ নামে একটি ছবি প্রযোজনার ইচ্ছা প্রকাশ করেন নাদের খান। এছাড়া পরিচালক শহিদুল হক খানও অঞ্জুকে নিয়ে ছবি নির্মাণের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। অঞ্জু ঘোষ ও ইলিয়াস কাঞ্চন দুজনেই জানান, গল্প পছন্দ হলে তারা অবশ্যই কাজ করবেন।    

১৯৯৬ সালে দেশ ছাড়েন অঞ্জু। তখন থেকেই কলকাতায় বসবাস করছেন এই নায়িকা। কলকাতায় বেশ কিছু চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, অঞ্জুর প্রকৃত নাম অঞ্জলি। ১৯৭২ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রামের মঞ্চনাটকে জনপ্রিয়তার সঙ্গে অভিনয় করেন। ১৯৮২ সালে ফোক-ফ্যান্টাসি চলচ্চিত্র নির্মাতা এফ কবির চৌধুরী চলচ্চিত্রে আনেন তাকে। অঞ্জুকে নিয়ে তৈরি করেন ‘সওদাগর’ ছবি।

এরপর ১৯৮৯ সালে তোজাম্মেল হক বকুল পরিচালিত ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ তাকে রাতারাতি জনপ্রিয়তা এনে দেয়।

আরও পড়ুন :

এম/জেএইচ