নানা আয়োজনে মহানায়কের জন্মদিন উদযাপন

প্রকাশ | ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৪২ | আপডেট: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৫৬

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
ছবি: সংগৃহীত

অভিনয় নৈপুণ্যে কোটি মানুষের হৃদয়ে ঝড় তুলেছেন। সবাই ভালোবেসে তাকে দিয়েছেন মহানায়ক উপাধি। তিনি উত্তম কুমার। আজ ৩ সেপ্টেম্বর, বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি নায়ক উত্তম কুমারের ৯৩তম জন্মদিন।

কলকাতায় বিশেষ আয়োজনে মহানায়কের জন্মদিন পালন করেছে তার ভক্তরা। জানা গেছে, কলকাতার টালিগঞ্জে উত্তম কুমারের আবক্ষ মূর্তিতে সকালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় মহানায়ক উত্তম প্রতিষ্ঠিত শিল্পী সংসদ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন শিল্পী সংসদের সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়িকা ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, কলকাতা পৌর করপোরেশনের মেয়র ইন কাউন্সিল দেবাশীষ কুমার, অভিনেতা অরিন্দম গাঙ্গুলি, পরিচালক রেশমি মিত্র, গায়ক দীপংকর চক্রবর্তী, অশোক ভদ্র, উত্তম কুমারের নাতি গৌরব চক্রবর্তীসহ অনেকে।

 ‘দৃষ্টিদান’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পথচলা শুরু করেন উত্তম কুমার। ছবির পরিচালক ছিলেন নিতীন বসু। এর আগে উত্তম কুমার ‘মায়াডোর’ ছবিতে কাজ করেন। তবে সেটি মুক্তি পায়নি।

‘সাড়ে চুয়াত্তর’ ছবিতে প্রথমবারের মতো অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের সঙ্গে কাজ করেন। ছবিটি বাংলা চলচ্চিত্র জগতের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সফল উত্তম-সুচিত্রা জুটির সূত্রপাত করে।

এই জুটির সফল ছবির মধ্যে আছে- হারানো সুর, পথে হল দেরী, সপ্তপদী, চাওয়া পাওয়া, বিপাশা, জীবন তৃষ্ণা ও সাগরিকা। জনপ্রিয় এই অভিনেতা বেশ কয়েকটি হিন্দি ছবিতে কাজ করেন। এগুলো হলো- ছোটিসি মুলাকাত, অমানুষ ও আনন্দ আশ্রম। প্রখ্যাত নির্মাতা সত্যজিৎ রায়ের দুটো চলচ্চিত্রে কাজ করেছিলেন তিনি। ‘নায়ক’ ও ‘চিড়িয়াখানা’ দুটো ছবিই প্রশংসিত হয়।

উত্তম কুমারের জন্ম কলকাতায়। ১৯২৬ সালের ৩ সেপ্টেম্বর তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তার আসল নাম অরুণ কুমার চট্টোপাধ্যায়। ১৯৮০ সালের ২৪ জুলাই উত্তম কুমার পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে যান না ফেরার দেশে। মৃত্যুর আগে তিনি ‘ওগো বধূ সুন্দরী’ ছবির শুটিং করছিলেন।

আরও পড়ুন :

পিআর/এ