‘১০ বছরের প্রেম, চার বছরের বিবাহিত জীবন’

প্রকাশ | ১৫ জুন ২০১৮, ১৬:৪১ | আপডেট: ১৫ জুন ২০১৮, ১৬:৪৮

পাভেল রহমান, আরটিভি অনলাইন
ছবি: সংগৃহীত

ক্যারিয়ারের একদম শুরুর দিকেই ফারুক হাসান সামীরের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন আন্তর্জাতিক মডেল পিয়া। ২০০৮ সালের ১২ জুন থেকে শুরু হয়েছিল পিয়া-ফারুকের এই যুগল পথ চলা। ছয় বছর প্রেমের পর ২০১৪ সালের ১৫ জুন বিয়ের পিঁড়িতে বসেন এই তারকা। আজ বিবাহিত জীবনের চার বছর উদযাপন করছেন ফারুক-পিয়া দম্পতি।  আরটিভি অনলাইনের মুখোমুখি হয়েছেন জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়া। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন পাভেল রহমান।

ঈদের ব্যস্ততা নিয়ে জানতে চাই?

এবার ঢাকাতেই ঈদ উদযাপন করা হবে। খুলনায় যাওয়া হচ্ছে না। গত দুই সপ্তাহ ভারতে কাজ নিয়ে ভীষণ ব্যস্ত ছিলাম। এখন ঢাকাতেই আছি। এবার ফাঁকা ঢাকায় ঈদের আনন্দ ভাগ করে নেবো। সেই সঙ্গে আমার জীবনের একটি বিশেষ মুহূর্তও আজ। ২০১৪ সালের ১৫ জুন ফারুক আর আমি বিবাহিত জীবন শুরু করেছিলাম। আজ আমাদের বিবাহবার্ষিকী।

বিশেষ এই দিনে কোনো বিশেষ পরিকল্পনা আছে কি?

আমাদের প্রতিটা দিনই বিশেষ। আমরা দুজনই নিজেদের কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি। আবার এই ব্যস্ততার মাঝে প্রতিটা দিনই আমরা ভালোবাসায় উদযাপন করি। ফলে বিবাহবার্ষিকী নিয়ে আলাদা করে কোনো পরিকল্পনা করা হয়নি। তবে সন্ধ্যার পর ঘুরে বেড়ানোর ইচ্ছা আছে।

আপনাদের প্রেমের শুরুর কথা বলবেন কী?

১০ বছর আগে ফারুকের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক শুরু। মজার বিষয় হচ্ছে আমাদের প্রেমটা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছিল ২০০৮ সালের ১২ জুন। এরপর ২০১৪ সালের ১৫ জুন বিয়ে। এখন বিবাহিত জীবনের চার বছর পেরিয়ে এসেছি।

বিবাহিত জীবনের চার বছর পেরিয়ে প্রেমিক ফারুক সম্পর্কে কীভাবে মূল্যায়ন করবেন?

আমার সকল কাজে ফারুকের সমর্থন পেয়েছি। আমার বন্ধু, ভালোবাসার সবটা জুড়েই সে। এমন বন্ধুর মতো স্বামী পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। আমার সমস্ত কাজে ওর অনুপ্রেরণা আর ভালোবাসায় আমি ভীষণ মুগ্ধ।

বিশ্বকাপ ফুটবল প্রসঙ্গে আসা যাক। কোন দলের সাপোর্ট করেন?

আমি পর্তুগালের সাপোর্টার। তবে ফারুক আর্জেন্টিনার সাপোর্টার। চাঁদরাতে বাইরে বেড়ানোর পরিকল্পনা আছে। রাতে পর্তুগালের খেলা দেখবো। আর কাল তো ঈদের আনন্দে কাটবে পুরো দিন।

আপনাকে ধন্যবাদ।

আপনাকেও ধন্যবাদ। সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা।

পিআর/পি