‘বাংলাদেশে আমি মুগ্ধ’

প্রকাশ | ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৫:০৩ | আপডেট: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৫:২৪

এ এইচ মুরাদ

টালিগঞ্জের জনপ্রিয় নায়িকা শ্রাবন্তী। সম্প্রতি ঢাকায় এসেছিলেন মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পরিচালিত ‘যদি একদিন’ ছবির শুটিংয়ে অংশ নিতে। তার বিপরীতে আছেন জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী-অভিনেতা তাহসান খান ও হালের ক্রেজ তাসকিন রহমান। বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের প্রযোজনায় নির্মিত হচ্ছে ছবিটি। প্রথম লটের শুটিং শেষে সোমবার সকালে কলকাতায় ফিরে গেছেন শ্রাবন্তী। এর আগে আরটিভি অনলাইনের মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। কথা বলেছেন ‘যদি একদিন’ ছবি ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক এ এইচ মুরাদ। শ্রাবন্তীর দুই কিস্তির সাক্ষাৎকারের শেষ কিস্তি প্রকাশিত হলো আজ।

শুটিং নিয়ে তো অনেক কথাই হলো, এবার বলুন বাংলাদেশে এসে কেমন লাগছে?

এর আগেও বাংলাদেশে এসেছিলাম। এবার রাজের (মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ) পরিচালিত ‘যদি একদিন’ ছবির জন্য আবার আসা হলো। এদেশের মানুষের আতিথেয়তায় আমি মুগ্ধ। এত আন্তরিকতা পৃথিবীর আর কোথায় পাওয়া যাবে বলে আমার মনে হয় না।  

কলকাতা শিল্পীরা ঢাকা আসলে অনেকেই কেনাকাটা করে থাকেন। আপনি কিছু কিনেছেন?

আসলে এবার মাত্র ছয় দিনের শিডিউলে ঢাকা এসেছি। বেশি কিছু কিনতে পারিনি। ছোট-খাটো জিনিসপত্র কিনেছি। ঢাকাই শাড়ি আমার খুব পছন্দের। এবার জামদানি শাড়ি কিনেছি। আর ইলিশ মাছ আমার প্রিয় একটি খাবার। প্রচুর ইলিশ মাছ খেয়েছি। এজন্য ‘যদি একদিন’ টিমকে ধন্যবাদ খাবারের মেনুতে আমার প্রিয় এই খাবারটি রাখার জন্য (হাসি)।   

দীর্ঘ চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারে প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তি?

অপ্রাপ্তি নিয়ে আমি কখনই ভাবি না। তবে প্রাপ্তি অনেক। দর্শকের প্রচুর ভালোবাসা পেয়েছি। এখনও পেয়ে যাচ্ছি। আমি খুব ছোটবেলায় অভিনয়ে এসেছিলাম। বাণিজ্যিক ছবির নায়িকা হয়েছি খুব অল্প বয়সে। আজও দর্শক আমাকে ভালোবাসেন। একজন শিল্পীর জীবনে দর্শকের ভালোবাসার চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কিইবা থাকতে পারে।  

এমন কোনো চরিত্র আছে যেটিতে অভিনয় করতে চেয়েছেন কিন্তু হয়ে উঠেনি? 

কত চরিত্রই তো আছে। কিন্তু ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটে নির্মিত ছবির প্রতি দুর্বলতা আছে। ভৌতিক ছবির প্রতিও ভীষণ দুর্বলতা আমার। কমেডি ও অ্যাকশন ছবি করার ইচ্ছে আছে। ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে আমি নিজেকে দেখতে চাই।    

টালিগঞ্জে আপনার বর্তমান কাজ নিয়ে জানতে চাই

সৃজিত মুখার্জির ‘উমা’ ছবিতে কাজ করলাম। আর অভিমন্যু মুখার্জির ‘প্রিয়ারে’ নামে একটি ছবি করেছি। ছবির একটি গান বাকি আছে। গানের শুটিং শেষে রিলিজের প্রস্তুতি শুরু হবে। এছাড়া ‘দৃশ্যান্তর’ নামে আরও একটি ছবি করছি। আরও বেশ কয়েকটি ছবিতে কাজের কথা রয়েছে।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

অনেক অনেক ভালো কাজ করতে চাই। মানুষের ভালোবাসা নিয়ে আরও অনেক ভালো কাজের ইচ্ছে আছে। আমি কাজের মাধ্যমে মানুষের মাঝে বেঁচে থাকতে চাই।

আরও পড়ুন: 

এম/এ